যত সময় এগোচ্ছে ততই যেন পরিস্থিতি আরও সঙ্কটজনক হচ্ছে ফেলুদার।  একটানা ৩০ দিন ধরে বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কিংবদন্তী অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। চলছে জীবন-মৃত্যুর লড়াই। অদম্য ফাইটিং স্পিরিট নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন বাঙালির ফেলুদা। এহেন পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর আক্রমনের শিকার হলেন সৌমিত্র কন্যা তথা নাট্যকর্মী পৌলমী বসু। তিনি একা নন, অভিনেতার পরিবারের অনান্যরাও  রয়েছেন সেই তালিকায়।

সৌমিত্র কন্যা পৌলমী জানিয়েছেন,  এই দুঃসময়ে কিছু মানুষ ভুল খবর রটাচ্ছেন , যা অত্যন্ত লজ্জাজনক। নিজের ফেসবুক পোস্টে বেশ কিছু স্ক্রিনশট শেয়ার করেছেন পৌলমী, যেখানে দেখা যাচ্ছে, নেটিজেনদের একজন লিখেছেন,  'সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আমাদের  গর্ব কিন্তু তার মেয়ে বাবার নাম ভাঙিয়ে নাটকে সুযোগ পান'। আবার কেউ লিখেছেন,  'উত্তম কুমার এবং সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় কারোর ছেলেই মানুষ হয়নি'। এখানেই শেষ নয়, বরং আরও কুরুচিকর মন্তব্যের শিকার হয়েছেন পৌলমী। দেখে নিন পোস্টটি,

Kichu screenshot dichchi... egulo ignore kora jetei pare... ami ektuo bicholito noi... kintu bhulbhal khoborer ekta...

Posted by Poulami Bose on Tuesday, November 3, 2020

 

কিছুদিন আগেও সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেতার শারীরিক অবনতি নিয়ে গুজব ছড়িয়ে যায়। সৌমিত্র আর নেই,  একটা অধ্যায়ের শেষ, এই ধরনের নানা পোস্ট গতকাল দুপুর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যেতে থাকে। সত্যি মিথ্যা যাচাই না করেই অধিকাংশ মানুষ নিজেদের স্ট্যাটাসে 'রিপ' বার্তাও পোস্ট করতে থাকেন। মুহূর্তের মধ্যে ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপে ভাইরাল হয়ে যায় বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুসংবাদ। এমনকী হাসপাতালে ভিতরে শুয়ে থাকা সৌমিত্রর ছবিও ফাঁস হয়ে যায়। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদমাধ্যম সর্বত্রই ছড়িয়ে যায় এই ছবি। সৌমিত্রকে নিয়ে এই ভুঁয়ো খবরে রীতিমতো ক্ষুব্ধ অভিনেতার পরিবার। তখনও সৌমিত্র কন্যা পৌলমী বসু  বাবাকে নিয়ে ওঠা গুজবের ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।