অনলাইনে একের পর এক প্রতারণার শিকার দিন দিন বাড়ছে। কমবেশি প্রত্যেকেই এি মরণ ফাঁদে পা দিয়ে এই প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। যে কিনা নিজের জাদুতে সবাইকে বোকা বানিয়ে জাদু দেখান তিনি কিনা এবার বোক হলেন। বিষয়টি বুঝতে পারছেন না তো। বিষয়টি একটু খোলসা করে বলা যাক, বিশ্বখ্যাত জাদুকর পি সি সরকার জুনিয়র -এর মেয়ে এবার প্রতারণার শিকার হলেন। বাংলা সিনেমা জগতের প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী মৌবনী সরকার এই প্রতারণার ফাঁদে এবার পা দিলেন।  খবর জানাজানি হওয়া মাত্রই পুলিশ থেকে সাধারণ মানুষ সকলেই অবাক হয়ে গেছেন। যদি জাদুর দ্বারা সবাইকে বোকা বানান, তার ঘরেই এবার প্রতারকের প্রবেশ।

আরও পড়ুন-সলমনের কোলে কার সন্তান,নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হল সেই ছবি...

ঠিক কী ঘটেছিল? জাদুকর কন্যা মৌবনী সরকারের কাছে একটি অচেনা নম্বর থেকে ফোন আসে যে তিনি নাকি লটারি জিতেছেন। এবং পুরস্কার হিসেবে তিনি একটি টিভি জিতেছেন। যার বাজারমূল্য প্রায় ৪৯০০০ টাকা। আচমকা এই বিষয়টি নিয়ে তিনি বেশ আনন্দিত হয়েছিলেন। এবং এই খবর শোনা মাত্রই তিনি এই উপহার নিতে রাজিও হয়ে যায়।

আরও পড়ুন-অমিতাভ থেকে অক্ষয়, মকর সংক্রান্তির শুভেচ্ছায় মাতোয়ারা বলিউড...

কিন্তু এই উপহারের মধ্যেই রয়েছে একটি গল্প। যেখানে তাকে ওয়েবসাইটের তরফ থেকে জানানো হয় উপহার নিতে গেলে তাদের ওয়েবসাইট থেকে ৫০০০ টাকা মূল্যের কিছু একটা জিনিস কিনতে হবে। আর সেই মতো মৌবনী একটি জিনিস কিনেও ফেলেন। এমনকী বিশ্বাস অর্জনের জন্য  তাদের পরিচয়পত্রও মৌবনীও হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়ে দেয়। আর তারপরই মৌবনীর বিশ্বাস আরও দৃঢ় হয়। তারপর জিএসটি বাবদ ১১৯০০ টাকাও চাওয়া হয় অভিনেত্রীর থেকে এবং বলা হয় পরে এই টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে। আর পরিচয়পত্রের কথা ভেবে মৌবনীও টাকা পাঠিয়ে দেয় তাদের অ্যাকাউন্টে। ব্যস তাতেই ঘটে বিপত্তি। টাকা পৌঁছানোর পর থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও ফোন আসেনি মৌবনীর ফোনে। তারপরই গড়িয়াহাট থানায় অভিযোগ জানায় অভিনেত্রী। ইতিমধ্যেই পুলিশি তদন্ত শুরু হয়ে গেছে। তবে প্রতারণার ঘটনা হামেশাই প্রকাশ্যে আসছে। কেন অভিনেত্রী এর ফাঁদে পা দিলেন এটাই বোঝা যাচ্ছে না।  তবে অভিনেত্রী জানিয়েছেন ছোটবেলা থেকেই লটারিতে তিনি উপহার পেয়েছেন আর এবারও তাই ভেবেছিলেন তিনি।