একদিকে শ্যুটিং ফ্লোর, অপরদিকে রাজনীতির ময়দান। 'ব্যালান্স' করে পা ফেলা প্রতি পদক্ষেপে। কিডন্যাপ, পাসওয়ার্ডের কাজে তার যতটা মনোসংযোগ ছিল ততটাই তিনি গুরুত্ব দিয়েছেন ঘাটাল কেন্দ্রের ওপর। বরাবরই এমনটাই দাবী করে এসেছেন দেব। এবার নাটকীয়ভাবে সেই ব্যালান্সই চোখে পড়ল দর্শকদের। একদিকে মৌলিক অধিকার অন্যদিকে রবিবারের বিনোদন। দুই মিলিয়েই দেব প্রকাশ করলেন তার আগামী ছবি কিডন্যাপের ট্রেলার।

শনিবার রাতে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে ছবির নায়িকা রূক্মিনীর সঙ্গে তিনি জানান, রবিবার সপ্তম দফার ভোটেই মুক্তি পাবে 'কিডন্যাপ' ছবির ট্রেলার। সঙ্গে দুই তারকা এও বলেন, সকাল সকাল ভোট দিন এবং ফিরে এসে ট্রেলার দেখুন। রুক্মিনীও গলা মিলিয়ে বলে ওঠে ভোট দিন ট্রেলার দেখুন।

কথা মতই রবিবার সকাল এগারোটা নাগাত নিজের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে ট্রেলার মুক্তির খবর শেয়ার করেন অভিনেতা। ট্রেলারের প্রথমেই মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা এক অসহায় বাবার চিঠিতে গল্পের বর্তমান সমাজে প্রাসঙ্গিকতার এক ঝলক আভাস মেলে। দেব রুক্মিনীর রোম্যান্স থাকলেও ট্রেলার জুড়েই ছবির পটভূমিকে তুলে ধরা হয়েছে।

কিডন্যাপ, যা সমাজের এক অন্ধকার দিকের কথা বলে, গল্পের ভিত তৈরি সেই বিষয়কে ঘিরেই। শহরের আনাচে কানাচে দেওয়া লেখা মিসিং গার্ল দেখেই প্রথম অভিনেতার মনে কৌতুহল জাগে। আর তারপর খোঁজ নিয়ে জানতে পারা এমন হাজারো পরিবার আছে যাদের সন্তানরা আজও ফেরেনি ঘরে। নিখোঁজের তালিকা ক্রমেই চলেছে বেড়ে। তাই সচেতনতার কথাও স্মরণ করাতে ভোললেননি দেব। ছবির টিজার লঞ্চে এসে জানিয়েছিলেন এবিষয় সাবধান হওয়াটা কতটা প্রয়োজন।

তবে অভিনেতা এখন বেজায় চিন্তিত। একের পর এক পরীক্ষা। রবিবার এক বড় পরীক্ষা শেষ হলেও ফলাফল ঘোষণার পরই অপর এক পরীক্ষা। মুক্তি পাবে কিডন্যাপ। দুইয়ের রায়ই সাধারণ মানুষের হাতে।