১১ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন। কিছুক্ষণের মধ্যেই খবর আসে অভিষেক বচ্চন ও আরাধ্যা-ঐশ্বর্যও করোনায় আ্রক্রান্ত হয়েছেন। পরের দিন সকালেই কর্পোরেশন থেকে বাড়ি সিল করে দেওয়া হয়। জলসা কনটেনমেন্ট জোনের আওতায় চলে আসে। পরের দিনই গোটা বাড়ি স্যানিটাইজ করা হয় কর্পোরেশন থেকে। বাড়ির গেটে কনটেনমেন্ট জোনের পোস্টারও লাগিয়ে দেওয়া হয়। 

আরও পড়ুনঃ সুশান্ত মৃত্যু তদন্ত, পুলিশের সমন পেলেন মহেশ ভাট, ডাকা হতে পারে করণ জোহারকেও

সেদিন থেকে কেটে গিয়েছে ১৪ দিন। তাই নিয়ম মাফিক জলসা এবার কনটেনমেন্ট জোনের তালিকা থেকে সরে গেল। খুলে গেল জলসার দরজা। করোনার আবহের মাঝে বচ্চন পরিবারের কাছে এটি একটি খানিক খুশির খবর। যদিও নিয়ম মেনেই থাকতে হবে সকলকে। কারণ বাড়ির বাকি সদস্যরা এখনও করোনা মুক্ত নয়। তবে জয়া বচ্চনের শরীরে মেলেনি করোনা ভাইরাস। যার ফলে বাড়িতে তিনি একাই রয়েছেন।

বিএমসি থেকে জানিয়ে দেওয়া হল জলসা এখন নিরাপদ। যদিও অমিতাভ বচ্চন ও তাঁর পরিবারের তিন সদস্যের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটছে। বর্তমানে অমিতাভ, অভিষেক, ঐশ্বর্য ও আরাধ্যা ভর্তি রয়েছেন নানাবতি হাসপাতালে। সেখান থেকেই ভক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন অমিতাভ বচ্চন। জানিয়েছেন কীভাবে সময় কাটছে তাঁর হাসপাতালে। পাশাপাশি সকলে তাঁদের দ্রুত সুস্থতার আর্জি জানিয়ে আরোগ্য কামনা করে চলেছেন।