Asianet News Bangla

'কেন নিজেকে এভাবে শেষ করে দিলে সুশান্ত' টুইটারে আবেগপ্রবণ অমিতাভ

  • সুশান্তের মৃত্যু মেনে নিতে পারেননি বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন
  • কেন এমনটা করলে সুশান্ত, এটাই প্রশ্ন বিগ-বির
  • অমিতাভ বচ্চন নিজের টুইটারে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন সুশান্তের উদ্দেশ্যে
  • সুশান্তের চলে যাওয়ায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে বলিউডে
Amitabh Bachchan tweets on Sushant Singh Rajput's death
Author
Kolkata, First Published Jun 16, 2020, 10:54 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বলিউডের দুঃসময় যেন আর যাচ্ছে না। একের পর এক নক্ষত্রপতন হয়েই চলেছে। গত কয়েকমাসেই এতগুলি দুঃসংবাদ যেন বিষাদের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে টিনসেল টাউনে। কবে শেষ হবে এই দুর্দিন, সেইদিনের অপেক্ষায় বলিউড। বর্তমানে একটাই খবর চারিদিকে। বলি অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত আত্মহত্যা করেছেন। দীর্ঘদিন ধরেই মানসিক অবসাদ ভুগছিলেন অভিনেতা।  মানসিক অবসাদে এমন স্টেজে পৌঁছে গেছিলেন যে মৃত্যুটাই বেছে নিয়েছিলেন অভিনেতা। কী এমন  কষ্ট মনের মধ্যে চেপে রেখেছিলেন সুশান্ত। তা জানারই আপ্রাণ চেষ্টা। গোটা বি-টাউন বলি অভিনেতা সুশান্ত সিং-এর মৃত্যুর খবরে নড়ে উঠেছে। তার মৃত্যু মেনে নিতে পারেননি বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনও।

আরও পড়ুন-বিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও গোপনে বিয়ে করেছিলেন শ্রীদেবীকে, স্বীকার করেছিলেন মিঠুন...


অমিতাভ বচ্চনও  নিজের টুইটারে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন সুশান্তের উদ্দেশ্যে। কিন্তু এর কোনও সুদুওর মেলেনি বিগ বি। কে দেবে এর জবাব। কেউ আর নেই। হাসিখুশি সুশান্তের হাসির মধ্যেই যে এত চাপা কষ্ট লুকিয়ে ছিল তা দেখারও কেউ নেই। কেন  কেন কেন কেন? কেন এমনটা করলে সুশান্ত? এটাই প্রশ্ন বিগ-বির। দেখে নিন পোস্টটি।

 

নিজের টুইটারে অমিতাভ জানিয়েছেন,  'কেন  কেন কেন কেন..সুশান্ত সিং রাজপুত..কেন তুমি নিজেকে শেষ করে দিলে। তোমার এত ট্যালেন্ট, প্রচুর বুদ্ধি, কাউকে কিচ্ছু জিজ্ঞাসা করলে না তুমি। এভাবেই চলে গেলে। ' অমিতাভ আরও জানিয়েছেন, ধোনি সিনেমাটা খুব মন দিয়ে দেখার পর সুশান্তকে প্রশ্ন করেছিলাম তুমি কীভাবে মাহির মতো ছক্কা মেরেছিলে ? সুশান্তের একটাই উত্তর,  'ধোনির ওই শটের ভিডিও প্রায় ১০০ বারেরও বেশি দেখেছিলাম। আর তার ফলেই ওর কাছাকাছি আসতে পেরেছিলাম। '

আরও পড়ুন-'মানসিক অবসাদ থেকে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত আমিও নিয়েছিলাম' সুশান্তের মৃত্যুতে বিস্ফোরক বয়ান পার্নোর...


সুশান্ত সিং রাজপুত। সেই হাসিখুশি ছেলেটা, যে নাকি মৃত্যুর বিপক্ষে লড়াইয়ের কথা সকলকে বলে গেছেন, তিনি আর নেই। বড্ড কষ্টের এটা মেনে নেওয়া। আকাশমুখী, অঙ্ক পাগল, বইপ্রেমী ছেলেটা আজও চিরঘুমে। এই কঠিন সত্যিটা কেউই যেন মেনে নিতে পারছেন না। মাত্র ৩৪ বছরেই  ঝা চকচকে কেরিয়ারে ফুলস্টপ দিয়ে দিলেন তিনি। কেন এমনটা করলেন? এখনও মেলেনি তার কোন সুদুওর। শুধু একটাই শব্দ মানসিক অবসাদ। এই শব্দটাই তিলে তিলে শেষ করছে একাধিক প্রাণ। কত শক্তিই রয়েছে এই ছোট্ট শব্দটার মধ্যে যে মানুষের প্রাণ নিয়ে নিচ্ছে অবলীলায়। তার এই অকাল প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বলিউডে। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios