টুইটার থেকে নিজের অ্যাকাউন্ট ডিলিট করে ফেললেন অনুরাগ কাশ্যপ। নিজের রাজনৈতিক মতামত প্রকাশ্যে টুইট করেই বলতেন তিনি। আর সেই জন্যই তাঁর পরিবারের কাছে আসছে একের পরে এক হুমকি। বাধ্য হয়ে তাই নিজের টুইটার হ্যান্ডলই ডিলিট করতে হল পরিচালককে। 

নিজের অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার আগে দুটি টুইট করেছিলেন অনুরাগ। তার মধ্যে একটি টুইটের স্ক্রিনশট এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। টুইটে অনুরাগ লেখেন, যখন কারোর বাবা-মা হুমকি ফোন পেতে থাকেন ও মেয়েকে অনলাইনে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়, তখন আর কারও কিছু বলার থাকে না। গুন্ডারাই এখন ক্ষমতায় থাকবে এবং গুন্ডারাজের মধ্যে নতুন ভাবে জীবন গুছিয়ে নিতে হবে। নতুন ভারতকে অনেক অভিনন্দন। আশা করছি তোমার উন্নতি হবে। 

আরও পড়ুনঃ 'জয় হিন্দ' বলে পাক-মহিলার নিশানায় প্রিয়ঙ্কা! শান্তির বার্তা দিতে কী বললেন অভিনেত্রী

অন্য আর একটি টুইটে তিনি লেখেন, সবাইকে অনেক শুভেচ্ছা। এটা আমার শেষ টুইট কারণ আমি টুইটার ছেড়ে দিচ্ছি। আমি যদি নির্ভয়ে আমার মতামত প্রকাশই না করতে পারি, তা হলে কথা না বলাই ভাল।

অনুরাগ সব সময়েই রাজনৈতিক বিষয়ে নিজের মতামত স্পষ্ট করে বলেন। কিছুদিন আগে গণপিটুনি রুখতে পদক্ষেপ করার জন্য দেশের ৪৯ জন বিশিষ্টজন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি পাঠান। একের পরে এক হিন্দুত্ববাদীদের হাতে গণপিটুনি ও হত্যার শিকার হয়েছেন বহু মুসলিম  ও দলিত। কিন্তু এই বিষয়ে বরাবরই নীরব থেকেছেন মোদী। এই হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে যাতে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া সেই আবেদন চিঠি লেখেন বিশিষ্টজনেরা।  এঁদের মধ্য়ে অনুরাগও ছিলেন।