ভারতীয় সেনার প্রশংসা করে পাকিস্তানি মহিলার বাক্যবাণের নিশানা হলেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া। সম্প্রতি প্রিয়ঙ্কা ভারতীয় সেনার জন্য একটি টুইট করেছিলেন। তিনি লিখেছিলেন জয় হিন্দ! হ্যাশট্যাগ ভারতীয় সেনা। এই টুইট দেখেই এক পাক মহিলা প্রিয়ঙ্কার উপরে চড়াও হন। 

একটি ইভেন্টে ওই পাকিস্তানি মহিলা রাষ্ট্রসঙ্ঘের গুডউইল অ্যাম্বাসাডর হিসেবে প্রিয়ঙ্কার ভূমিকার প্রশ্ন তোলেন। ওই মহিলা বলেন, আপনি রাষ্ট্রসঙ্ঘের গুড উইল অ্যাম্বাসাডর। শান্তির বার্তা না দিয়ে আপনি পাকিস্তানে পারমানবিক যুদ্ধের ডাক দিচ্ছেন। আমার মতো এমন বহু পাকিস্তানি আপনাকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সমর্থন করেছি। 

ও মহিলা বলতে থাকলে প্রিয়ঙ্কা বলেন, আমি শুনছি। আপনার বলা হলে বলবেন। এর পরে ওই মহিলার বলা হয়ে গেলে প্রিয়ঙ্কা শান্ত গলায় বলেন, আমার পাকিস্তানে অনেক বন্ধু আছেন। আর আমি ভারতের বাসিন্দা। আমার যুদ্ধ ভালো লাগে না। কিন্তু আমি দেশপ্রেমী। তবে আমায় যাঁরা ভালোবাসেন বা ভালোবেসেছেন তাঁদের ভাবাবেগে আঘাত করে থাকলে আমি সত্যিই দুঃখিত। 

 

 

প্রিয়ঙ্কা আরও বলেন, কিন্তু আমি মনে করি প্রত্যেককেই নিজের একটা রাস্তা বেছে নিতে হয়। যে ভাবে একটা রাস্তা বেছে নিয়ে আপনি আমার কাছে এলেন। কিন্তু এভাবে চেঁচাবেন না। আমরা সবাই এখানে ভালোবাসার জন্য রয়েছি। 

ভালোবাসা ও শান্তির বার্তা দিয়ে পিগি চপস বলেন, আমরা পরস্পরকে যত সুযোগ দেব, তত আমাদের মধ্যে ভালোবাসা তৈরি হবে। সারা বিশ্বের জনসংখ্যার মধ্যে আমরাই ৫০ শতাংশ। আমাদের প্রতিনিধিত্ব করতে হবে। পরস্পরকে উন্নত করতে হবে আমাদেরই। মহিলাদের এগিয়ে যেতে হবে। মহিলারাই সবকিছু চালাচ্ছে এমন দিন আনতে হবে। কারণ সত্যিই আমরা যে কাজ করি মন দিয়ে করি।