ব্যাট বলের স্বপ্ন ভুলে আজ তিনি বলিউডের জাতীয় পুরস্কার জয়ী অভিনেতা। নাইডু ট্রফিতে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন অভিনেতা ইরফান খান। কিন্তু সুযোগ পেলেও সেই স্বপ্নপূরণ করতে পারেননি অভিনেতা। আর্থিক সঙ্কটের কারণে সেই স্বপ্নে ছেদ পড়েছিল। মাত্র ৬০০ টাকার জন্য সেই ২২ গজের স্বপ্নপূরণ আর হল না অভিনেতার। অভিনেতার চোখে তখন জাহির আব্বাস হওয়ার স্বপ্ন। কিন্তু স্বপ্নপূরণ বদলে যাওয়ায় হয়ে গেলেন বলিউডের অভিনেতা।

আরও পড়ুন-'সিনেমাপ্রেমীদের মনে আজীবন থেকে যাবেন ইরফান', টুইটে শোকপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের...

একটি সাক্ষাৎকারেই নিজের সেইদিনের দুঃখের কথা জানিয়েছিলেন অভিনেতা। ইরফান জানিয়েছিলেন,'৬০০ টাকার জন্য কার কাছে যাব সেদিন বুঝতে পারিনি অবশেষে সেই রাস্তাটাই ছেড়ে দিলাম।'  ছোটবেলা  থেকেই  জাহির আব্বাসের ফ্যান ছিলেন অভিনেতা। একবার ভারত-পাক ম্যাচ চলাকালীন জাহির আব্বাসের কাছে  অটোগ্রাফও নিয়েছিলেন অভিনেতা। আর তখন থেকেই জাহির হওয়ার স্বপ্নে একটু একটু করে বুদ হচ্ছিলেন অভিনেতা।

আরও পড়ুন-বলি অভিনেতা ইরফানের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ গোটা টলিউড, টুইটে শেষ শ্রদ্ধা তারকাদের...


পছন্দের তালিকায় আরও অনেক ক্রিকেটার আসলেও জাহির তার মনে অন্য জায়গায় ছিল। তবু শুধু ক্রিকেটই নয়, বরং ফাঁকা সময়ে টেনিসও খেলতেন অভিনেতা। কিন্তু ধীরে ধীরে  খেলা থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন অভিনেতা। তারপর পাকাপাকি ভাবেই চিরবিদায় জানিয়েছেন নিজের স্বপ্নকে। একটি সাক্ষাৎকারে ইরফান জানিয়েছিলেন,  'সারা দেশের  ১১ জনের মধ্যে জায়গা করাটা অনেকটাই কঠিন। সেদিক থেকে অভিনয়ে সেই চাপটা অনেক কম। নিজের অভিনয় দক্ষতা দিয়ে সেই জায়গায় তুমি দীর্ঘদিন টিকে থাকতে পারবে।' আর তিনিও তেমনটাই করেছিলেন। তারপরেরটা সকলেরই জানা।

আরও পড়ুন-'আমার মৃত্যুর আগে ইরফান খানের সঙ্গে কাজ করা হল না', চূড়ান্ত আফসোস নিয়ে জানালেন সৃজিত...

সমস্ত স্বপ্নপূরণের আজ শেষ দিন। দীর্ঘদিন ধরে ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলি অভিনেতা ইরফান খান। অবশেষে আর শেষরক্ষা হল না। মায়ের মৃত্যুর রেশ কাটতে না কাটতেই বলিউডকে বিদায় জানিয়ে চলে গেলেন বলি অভিনেতা ইরফান খান। গতকালই হঠাৎই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অভিনেতা। তড়িঘড়ি করে তাকে মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু পরিস্থিতির অবনতি হতেই আর ঠেকানো গেল না অভিনেতাকে। মৃত্যুকালে অভিনেতার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। অবশেষে থামল দীর্ঘ দেড় বছরের লড়াই। কোলন সংক্রমণের কারণেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেতা।