সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি 'ছপাক' এর মুক্তির আগেই জেএনইউ কান্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ে পা রাখেন দীপিকা পাড়ুকোন। তারপর থেকে নেটদুনিয়ায় এই নিয়ে উত্তাল হয়েছে। ছবি মুক্তির আগেও বেশ কয়েকবার আইনি জটিলতায় পড়েছে এই ছবি। এমনকী ছবি মুক্তির আগের দিন পর্যন্তও এই নিয়ে তরজা কাটেনি। যে যাই বলুক দীপিকা নিজের কাজে বিশ্বাসী ছিলেন । তার যেটা ঠিক মনে হয়েছে তিনি সেটাই করেছেন। সেই সময়ে দীপিকার প্রশংসায় যেমন পঞ্চমুখ হয়েছে একাংশ। তেমনই দীপিকাকে তোপ দাগতেও ছাড়ে নি সমালোচকরা। কেউ কেউ দীপিকাকে বয়কটেরও দাবি তোলেন।

আরও পড়ুন-ইট মারলে পাটকেল খেতেই হবে, ভিডিও বার্তায় 'ভাঁড়'-এর কড়া জবাব অনুপমের...

দীপিকার এই সাহসী পদক্ষেপকে কুর্নিশ জানিয়েছেন, বর্ষীয়ান অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে গিয়ে নাসিরুদ্দিন জানিয়েছেন, 'দীপিকার মতো সাহসী হতে হবে'। শুধু তাই নয়, নাসিরুদ্দিন আরও জানিয়েছেন, 'বলিউডেও অনেক কমবয়সি পরিচালক ও অভিনেতারাও এই আইনের বিরোধিতা সরব হয়েছেন। আবার কেউ কেউ নিজেদের স্বার্থে, ইমেজ বাঁচানোর জন্য চুপ করে রয়েছেন। নিজেদের স্ট্যাটাসের কথা চিন্তা করেও মুখে কুটুপ এটেছেন কেউ কেউ। কিন্তু দীপিকা তা করেননি। তিনি সবাইকে চোখে আঙুল দেখিয়ে সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছেন। শুধু তাই নয়, সমালোচকদের চোখ রাঙানিকে উপেক্ষা করে যেটা ঠিক সেটাই করেছেন।' 

আরও পড়ুন-সিএএ-এর সমর্থনে প্রচার অনুপমের, 'ভাঁড়' বলে কটাক্ষ নাসিরুদ্দিনের...

কিন্তু দীপিকার এই সমর্থনের পাশে নাসিরুদ্দিনকে পেলেও বলিউডের কন্ট্রোভার্সি কুইন তাকে সমর্থন করেননি। এমনকী তিনি যে তার পাশে কোনওভাবেই নেই তাও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। এদিকে দেশ জুড়ে যেন অরাজকতা হয়েই চলেছে। নাগরিকপুঞ্জ , সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে তীব্র প্রতিবাদ গর্জে উঠেছে। চলছে। সারা দেশের মানুষ একত্রিত হয়ে যখন এর প্রতিবাদে গলা চড়িয়েছেন ঠিক সেই সময়েই বিজেপি ঘনিষ্ঠ অনুপম খের সিএএ-এর সমর্থনে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।  এই প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। গত কয়েকদিন ধরে এই নিয়ে তরজা যেন বেড়েই চলেছে। যদিও এই প্রথমবার নয়, এর আগেও কাশ্মীরিদের অধিকারের লড়াই প্রসঙ্গে অনুপম খেরকে কটাক্ষ করে কড়া মন্তব্য করেছিলেন নাসিরুদ্দিন।