বলিউডে পা রেখেছিলেন আমির খানের হাত ধরে। আমির খান অভিনীত ছবি 'দঙ্গল'-এ আমির খানের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম। তাঁর অসামান্য অভিনয় তাঁকে এন দিয়েছিল জাতীয় পুরষ্কার। এরপর আমির খানের সঙ্গে তাঁকে দেখা গিয়েছিল সিক্রেট সুপারস্টার ছবিতে। সেখানেও তাঁ অভিনয় দর্শকের মন কেড়েছিল। বলিউডে মাত্র পাঁচ বছরেই যখন তাঁর কেরিয়ার গ্রাফটি যখন ধীরা ধীরে উঠতে শুরু করেছিল ঠিক তখনই জায়রা সিদ্ধান্ত নিলেন যে, তিনি আর অভিনয় করবেন না। কিন্তু কী এমন ঘটল যে যার জন্য এত বড় সিদ্ধান্ত নিলেন জায়রা?

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেই অভিনয় ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জায়রা। আর খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় জায়রার এই পোস্ট। কিন্তু কী এমন ঘটনা ঘটল যে কেরিয়ারে সাফল্য অর্জন করেও কাজে ইতি টানতে চাইছেন তিনি। ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে জায়রা লিখেছেন, পাঁচ বছর আগে তিনি একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, যা তাঁর জীবনই বদলে দিয়েছিল। বলিউডে পা রাখা মাত্রই তাঁর জন্য ব্যাপক জনপ্রিয়তার দ্বার খুলে গিয়েছিল। সাধারণ মানুষের কাছে তাঁর গ্রহণযোগ্যতাও বাড়তে শুরু করে। তাঁকে একজন আদর্শ মডেল হিসাবেও তুলে ধরা হয়েছে। কিন্তু তিনি কখনওই এমনটা চাননি, সাফল্য ও ব্যর্থতাকে তিনি কখনওই এভাবে দেখেননি। আর এখন সেটা তিনি বুঝতে শুরু করেছেন। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর দীর্ঘ পোস্টে তিনি আরও লেখেন, নিজের এই পরিচয় নিয়ে তিনি একেবারেই খুশি নন। তবে তিনি এও স্বীকার করেন যে, অভিনয়ের জগতে এসে তিনি অনেক ভালবাসা ও সুনাম অর্জন করেছেন। কিন্তু এর জন্যই অবচেতন মনে কোথাও গিয়ে তিনি তাঁর ধর্মবিশ্বাস থেকে দূরে সরে যাচ্ছিলেন। আর এই ধরনের পরিবেশে কাজ করতে এসে তিনি অনুভব করেন যে নিজের কাজ চালিয়ে যাওয়ার যে চেষ্টা তিনি করছের বারবার সেখানে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে তাঁর ধর্ম। আর তাই এত ছোট জীবনে এই বিশাল লড়াই তিনি লড়তে পারব না। সুতরাং, সেই কারমেই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান তিনি। 

প্রসঙ্গত জায়রার বয়স এখন মাত্র ১৮। এই এত কম বয়সে ধর্মের কারণে নিজের কেরিয়ার বিসর্জন দেওয়ার সিদ্ধান্ত যে একাবারেই তাঁর নিজের সিদ্ধান্ত সেকথাও লিখেছেন তিনি। এখন থেকে তিনি এক নতুন জীবন শুরু করতে চান বলেও ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন জায়রা।