লকডাউন মানেই এখন থ্রোব্যাক। সাধারণ মানুষ থেকে সকল তারকাদের থ্রোব্যাক ছবি, মুহূর্ত বারে বারে ভেসে উঠছে নেটদুনিয়ার ফিডে। কখনও ছোটবেলার ছবি বা ভিডিও বা কখনও পুরনো স্মৃতি নিয়ে আসছে অজানা গল্প। তেমনই দীপিকা পাডুকোনের স্কুলের সময়কার একটি ছবি বারে বারে ঘউরে ফিরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ার আনাচে কানাচে। পরণে স্কার্ট এবং টিউনিক। বা হাতে ছোট্ট একটা ট্রফি এবং ডান হাতে বেশ কয়েকটি সার্টিফিকেট নিয়ে দাঁড়িয়ে দীপিকা। বয়স তখন কতই বা হবে, খুব বেশি হলে আট দশ। 

আরও পড়ুনঃস্পয়লার অ্যালার্ট, 'মানি হাইস্ট'র সিজন ফাইভে মৃত্যু হবে প্রফেসরের গ্যাংয়ের অন্যতম সদস্যের

দীপিকার এই ছবিতে তাঁকে চেনা বেশ মুশকিল। বয়েস কাট চুল তার মধ্যে ছোটবেলার ছবি, চেনাই দায় হয়ে উঠেছে অভিনেত্রীকে। নিজে এ ছবি শেয়ার না করলে একাধিক মানুষের পক্ষেই চেনা কঠিন হয়ে উঠত। দীপিকার হাসি দেখে অবশ্য সকলের চিনতে পারার কথা। হাসিটা তো এখনও একই রকম রয়ে গিয়েছে। পুরনো ছবিটি পোস্ট করে সে নিয়ে এক বার্তাও শেয়ার করেছেন দীপিকা। ছোটবেলার ফোটগ্রাফের পিছনে লেখা রয়েছে একটি বিশেষ মেসেজ। 

আরও পড়ুনঃসাদা গাউনে টোনড ব্যাক, দীপিকার মেট গালা লুক আজও অপসরার কথা মনে করিয়ে দেয়

 

মেসেজটি লেখাছিল মায়ের জন্য। ভালবেসে মাঝে মধ্যে মাকে আজ্জু বলে ডাকেন দীপিকা। তাঁকে ছবির পিছনে চিঠি লিখেছেন স্কুলের স্পোর্টসে কী কী প্রাইজ জিতেছিলেন দীপিকা। লং জাম্পে প্রথম প্রাইজ, ৭৫ মিটার রেসে প্রথ, ৫০ মিটার রেসে দ্বিতীয় এবং রিলে তে দ্বিতীয়। প্রাইমারি সিনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপে কাপ পাওয়ার আনন্দ মায়ের সঙ্গে শেয়ার করে নিয়েছিলেন দীপিকা। সোফিয়া হাই স্কুলের সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃশরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা

আরও পড়ুনঃকী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

​​​​​​​ আরও পড়ুনঃসাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল