বলিউডের অন্দর মহলের ছবিটা যে খুব একটা সুখকর নয়, তা প্রথম থেকেই অনেকের জানা। তবে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে তা যেন আরও মাথা চারা দিয়ে ওঠে। একের পর এক অন্দরমহলের কাহিনি সকলের সামনে ফাঁস করতে থাকেন তারকারা। তালিকাতে উঠে আসে নেপোটিজম, স্বজন পোষণ, বলিউড মাফিয়ার মত বিষয়। তবে সেই বিষয়গুলোকে নিয়ে প্রকাশ্যে আলাচনা দীর্ঘ দিন না হলেও এবার নেট মহলে একের পর এক তরকা সরব হচ্ছেন। সেই তালিকাতে এবার নাম লেখানে দিয়া মির্জা। 

আরও পড়ুনঃ জেএনইউ-তে হাজিরার জন্য পাকিস্তানের থেকে ৫ কোটি, কঙ্গনার নিশানায় দীপিকা

দিয়া মির্জা এক সময় একাধিক বক্স অফিস হিট ছবি উপহার দিলেও, কিছু দিনের মধ্যেই তিনি সরে যান শিরোনাম থেকে। প্রথম সারির ছবিতে আর দেখা যেত না তারকারাকে। না তিনি সেচ্ছায় ছবির জগত থেকে নিজেকে সরিয়ে দিচ্ছিলেন এমনটা নয়, হাতে ছিল একের পর এক ছবির প্রস্তাব। কিন্তু তা শযএষ মুহূর্তে চলে যেত অন্য কারুর হাতে। সম্প্রতি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দিয়া এই নিয়ে মুখ খোলেন। 

দিয়ার কথায়, নেপোটিজম, স্বজন পোষণ এগুলো অস্বাস্থ্য কর বিতর্কের বিষয়। কোথায় নেই স্বজন পোষণ, নেপোটিজম, স্কুল থেকে তা শুরু হয়, শিক্ষক-শিক্ষিকার প্রিয় ছাত্র-ছাত্রীরাও তো থাকেন। দিয়া নিজের জীবন দিয়ে উপভোগ করেছেন, বিষয়টা পি.আর-এর ওপর নির্ভরশীল। অনেকেই আছেন যাঁরা তাঁদের যোগ্য সন্মান পান না। নিজের হাত থেকেও গিয়েছে একাধিক ছবি, মন ভেঙেছে, খারাপ লেখেছে, তবে এটাই সঙ্গী করে নিয়ে চলতে হয়েছে, ফলে এই বিষয়টা অনেক বেশি কষ্টের, তাই তাঁর কাছে নেপোটিজম, স্বজন পোষণ বিষয় হিসেবেও অস্বাস্থ্যকর।