মানসিক চাপ থেকেই আত্মহত্যা করেছেন সুশান্ত। সুশান্তের ফ্যানেরাও এটাই দাবি করেছেন। তার পরেও এটা মেনে নিতে পারছেন না। সুশান্তের মৃত্যুর কয়েকদিন যেতে না যেতেই ফের মৃত্যুসংবাদ টেলি দুনিয়ায়। করোনা ভাইরাসের মারণ থাবা কেড়ে নিল অভিনেতা ইরফানের প্রাণ। দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন অভিনেতা। করোনায় আক্রান্ত হয়েই তার মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে টেলি ইন্ডাস্ট্রিতে।

আরও পড়ুন-অন্তঃসত্ত্বা ঐশ্বর্য, ভাইরাল হওয়া গুজবে ঘুম উড়েছিল রাই সুন্দরীর...

হিন্দি টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া ভট্টাচার্য নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেল অভিনেতার মৃত্যুর সংবাদ জানিয়েছেন। জয়া জানিয়েছেন, থাপকি প্যায়ার কি টিমের ক্যারেকটর আর্টিস্ট ছিলেন ইরফান।   গত ২ বছর ধরেই অসুস্থ ছিলেন ইরফান। সেই অনুযায়ী চলছিল চিকিৎসা। চিকিৎসা চলাকালীন আচমকা আবারও অসুস্থ হয়ে পড়েন ইরফান। তারপরেই তড়িঘড়ি করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর তখনই জানা যায় কোভিজ-১৯ পজিটিভ অভিনেতার। করোনাতেও মারা গেলেন অভিনেতা। দেখে নিন জয়ার পোস্টটি।

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

#thapkipyaarki team... The guy inside this, our Irfan, is no more. He was unwell from a long time. I kept on asking him for his reports to try to understand what the basic issue was that was creating all his health problems since the last 2 years but... Gulab Dada told me of his being in hospital and on a bad state some days ago and then his weak body contracted corona. Today news from Susu, Irfan is no more Damn it. This is the second, lovely, hard working, talanted, person I am losing in this manner I am no medicine person but if we get to the correct doctor at the correct time for correct diagnosis we can save a life...thats what I believe I feel like shit right now

A post shared by Jaya Bhattacharya (@jaya.bhattacharya) on Jun 16, 2020 at 11:01pm PDT

 

জয়া আরও জানিয়েছেন, নিজের সোশ্যালে একটি ছবি পোস্ট করে জয়া বলেছেন এই টেডি বিয়ারের মধ্যে যে ছেলেটি রয়েছে সে আর নেই। ওকে অনেকবার বলেছিলাম ওর রিপোর্টগুলি দেখাতে। সময়মতো চিকিৎসা হলে হয়তো ওকে বাঁচানো যেত। উপযুক্ত চিকিৎসার অভাবেই চলে গেল ইরফান। সত্যিই খুব খারাপ লাগছে। যত দিন যাচ্ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা হুড়মুড়িয়ে বাড়ছে। সাধারণ মানুষ থেকে তারকা সকলেই আক্রান্ত। টেলি সিরিয়াল শুধু নয়, বলিউডেও এর করাল থাবা পড়েছে।