করোনা আবহে আরও এক নক্ষত্র পতন। আত্মহত্যা করলেন বলিউডের এ প্রজন্মের সেরা ব্য়াক্তিত্ব তথা অসাধারণ মেধাবি ছাত্র সুশান্ত সিং রাজপুত। রবিবার মুম্বইয়ের বাড়ি থেকেই উদ্ধার হয় তাঁর ঝুলন্ত দেহ। জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন তিনি। আর এই মর্মান্তিক খবরে পুরো বলিউড বিধ্বস্ত। শোকস্তব্ধ হয়ে টুইট করলেন ফারহান আখতার। বিশ্বাস করতে পারছেন না অনুরাগ কাশ্য়পও। তিনিও টুইট করেছেন।

 কিছু দিন আগে ইরফান আর ঋষি কাপুরের মৃত্য়ু হয়েছে। তার উপর আবার একটা মৃত্য়ু। তাও সেটা আত্মহত্য়া করে এত অল্প বয়েসে চলে যাওয়া। কেউ সেটা মেনে নিতে পারছে না। মন খারাপ হয়ে গেছে সবারই। ফারহান আখতার টুইটে জানিয়েছেন, 'সুশান্তের মৃত্যুতে তিনি একেবারেই হতবাক। এটা খুব খুব দুঃখজনক। তার পরিবারের আমার সমবেদনা রইল।'  সুশান্তের মৃত্য়ুতে অনেকেই ভীষনভাবে ভেঙে পড়েছেন। একে তো ছাত্রজীবনে মেধাবী। তার উপর সিরিয়াল থেকে ফিল্মি ক্য়ারিয়ারে একের পর এক সাফল্য়। তাকে চোখে হারতেন অনেকেই। বলিউডে এভাবে একের পর এক নক্ষত্র পতন হবে ২০২০তে কেউ ভাবেনি।

 

 

 

১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি পটনায় জন্মগ্রহণ করেন সুশান্ত সিংহ রাজপুত। পরবর্তীকালে দিল্লিতে চলে আসে সুশান্তের পরিবার। দিল্লি কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়েও ভর্তি হন। কিন্তু সেইসময় থেকেই থিয়েটারের দিকে ভালবাসা ছিল তাঁর । নাচও শেখেন এবং তার জন্য পড়াশোনা শেষ করতে পারেননি। সিরিয়ালে অভিনয় করার সময় অভিনেত্রী অঙ্কিতা লোখন্ডের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু সুশান্ত বলিউডে পা রাখার কিছু দিনের মধ্যেই ভেঙে যায় সেই সম্পর্ক। সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কখনও কারও সঙ্গেই কথা বলতেন না তিনি। জানিয়েছেন তাঁর কাছের মানুষেরা-পরিচিতরাই। ব্যক্তিগত বেশ কিছু সম্পর্ক থাকলেও তাঁর জেরে আত্মহত্যা কিনা তা এখনও জানা যায়নি। এখনও পর্যন্ত সুশান্তের ফ্ল্যাট থেকে কোনও সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়নি বলেই জানাচ্ছে পুলিশ।