বিতর্কিত ব্যক্তিদের মধ্যে কমল আর খানের নাম সর্বদাই শীর্ষে। একাধিক বলিউড অভিনেতা-অভিনেত্রীর বিষয়, যেকোনও জনপ্রিয় ব্যক্তিদের বিষয় বিতর্কিত মন্তব্য করে শিরোনামে উঠে আসার লক্ষ্য হল কমল আর খানের। বিতর্কের সঙ্গে মিশে থাকলেই যে খবরে তাঁর নাম উঠে আসবে, এই হিসেবটি বহুদিন আগে থেকেই বুঝে গিয়েছেন তিনি। তাই যে কারও সম্বন্ধে মন্তব্য করে সর্বদা খবরে টিকে থাকাই তাঁর মোটিভ। এবারে বলিউডের সদ্যপ্রয়াত দুই অভিনেতা ঋষি কাপুর এবং ইরফান খানকে নিয়ে মন্তব্য করে বসলেন কমল আর খান।

আরও পড়ুনঃবাংলার বিধ্বংসী আমফান নিয়ে নেই কোনও মিডিয়া কভারেজ, গর্জে উঠেলন করিনা

ঋষি কাপুরের সম্বন্ধে তিনি ট্যুইট করেন, "ঋষি কাপুরের এই মুহূর্ত মারা যাওয়া উচিত হয়নি। সবে তো মদের দোকান খুললো।" এই ট্যুইটের নিমেষের মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই তীব্র নিন্দায় ভরে উঠেছিল নেটদুনিয়া। ইরফান খানের বিষয় তিনি লিখেছেন, পরিচালকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করতেন সেটে। এই ট্যুইটগুলির জেরে যুব সেনার কোর কমিটির সদস্য রাহুল কনল এফআইআর করেছেন কমলের বিরুদ্ধে। 

আরও পড়ুনঃজাতি বিদ্বেষের জেরে আইনি বিপাকে অনুষ্কা, নেপালিদের প্রতি অপমানজনক শব্দের ব্যবহার 'পাতাল লোক'-এ

সবরবন বান্দ্রার পুলিশ জানিয়েছে, "প্রয়াত দুই অভিনেতা ঋষি কাপুর এবং ইরফান খানের সম্বন্ধে এমন অপমানজনক ট্যুইটের জেরে আমরা কমল আর খানের বিরুদ্ধে এফআইআর রেজিস্টার করে দিয়েছি। ভারতীয় দন্ডবিধি অনুযায়ী ২৯৪ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।" এখনও পর্যন্ত যদিও গ্রেফতার করা হয়নি তাঁকে। প্রসঙ্গ ২৯ এপ্রিল কোলন ইনফেকশনে প্রয়াত হন ইরফান এবং তাঁর প্রয়াণের চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে ঋষি কাপুর দীর্ঘ দুবছর লিউকেমিয়ার সঙ্গে লড়তে লড়তে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।