বলিউডে বায়োপিক, সীমান্তে ঘটা হামলা থেকে শুরু করে দেশের অন্তর্বতী হামলা, এক কথায় বলতে গেলে এটাই ট্রেন্ড। যা বক্স অভিসে মুহূর্তে ঝড় তোলে। দেশে ঘটা যে কোনও ঘটনাই এখন উঠে আসে ছবির প্রেক্ষাপটে। সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ইন্দো-চিনের সংঘর্ষ নিয়েও ছবি করার কথা উল্লেখ করেছেন অজয় দেবগণ। তবে এই পন্থার এবার ঘটতে চলেছে অবসান। সাধারণের কাছে এই ধরণের ছবি প্রিয় হলেও এবার আর মুঠো মুঠো দেশ প্রেমের গল্প দেখা যাবে না ছবির পর্দায়। 

আরও পড়ুনঃ হাজারে নয়, বিদ্যুৎ বিল এলো লাখে, সকলের অভিযোগকে ছাপিয়ে গেল আশা ভোঁসলের বাংলোর বিল

সার্জিকাল স্টাইক নিয়ে তৈরি ছবি উড়ি, বর্ডার বড় পর্দায় ঝড় তুলেছে, প্রতিবছরই ২৬ জানুয়ারি, স্বাধীনতা দিবসকে পাখির চোখ করে একের পর এক প্রযোজক, পরিচালক নতুন নতুন ভারতীয় সেনাদের নিয়ে তৈরি চিত্রনাট্যের ওপর কাজ শুরু করে দেন। আর সেই ছবি দেখে আবেগে ভেসে চলে ভক্ত মহল। তবে এবার আর ইচ্ছে মত করা যাবে না সেই ছবি। এমনটাই নির্দেশ জারি করা হল প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফ থেকে। 

সম্প্রতি এক ওয়েব সিরিজের চিত্রনাট্যে দেখা গিয়েছিল সেনার উর্দি ছিঁরে ফেলার দৃশ্য। সেখান থেকেই ওঠে আপত্তি। এবার কড়া হাতে বলিউডকে নিয়ন্ত্রণ করার ভার নিজের হাতে তুলে নিল প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। এই ধরনের ছবি আর করা যাবে না। করতে আগাম নিতে হবে অনুমতি। ছবি তৈরির পর তা দেখাতে হবে। সব দিক বিচার করে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট দিলে তবেই সেই ছবি মুক্তি করা যাবে। শুক্রবার এমনই নির্দেশ গেল সিবিএফসির কাছে। যা ছবি, তথ্যচিত্র ও ওয়েব সিরিজের জন্য প্রযোজ্য।