বক্স অফিসে ভাল ব্যবসা করছে হৃতিক রোশনের সুপার ৩০। গত ১২ জুলাই মুক্তি পেয়েছে এই ছবি। কিন্তু ইতিমধ্যে ১০০ কোটির তালিকায় ঢুকে পড়েছে এই ছবি। এই ছবির মুক্তি নিয়েও বেশ কয়েকটি বাধা পেরোতে হয়েছে হৃতিককে। প্রথমে জানুয়ারি মাসে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এই ছবির। অবশেষে এই ছবি মুক্তি পায় জুলাইতে। এই ছবির সঙ্গে অনেকটা আবেগ জড়িয়ে রয়েছে বলে এক সংবাদমাধ্য়মের কাছে জানান অভিনেতা।

হৃতিক জানান, কহো না পেয়ার হ্যায় ছবি সফল হওয়ার পরে যেমন অনুভব করেছিলেন, সুপার ৩০ মুক্তি পাওয়ার পরেও তেমনই লাগছে। কহো না পেয়ার হ্য়ায় মু্কি পাওয়ার পরে রাতারাতি বিখ্য়াত হয়ে গিয়েছিলেন হৃতিক। তেমনই অনুভূতি এই ছবি মুক্তির পরেও। 

হৃতিকের কথায়, আবেগটা একই রকম। তখন কহো না পেয়ার হ্যায় মুক্তির পরে যেমন লেগেছিল এই ছবি মুক্তির পরেও তেমন লেগেছে। 

আরও পড়ুনঃ একশো কোটির ক্লাবে চতুর্থবার হৃত্বিক রোশন, দশ দিনেই বাজিমাত সুপার থার্টি-র

বিকাশ বেহেলের পরিচালিত এই ছবিতে গণিতবিদ আনন্দ কুমারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন হৃতিক রোশন। অর্থের জন্য সমাজের পিছিয়ে পড়া মেধাবী ছেলেমেয়েদের নিয়ে শিক্ষার আলোয় পৌঁছে দিতেই উদ্যেগ নিয়েছিলেন আনন্দ কুমার। ৩০ জন দুর্দান্ত ছেলেমেয়েদের নিয়ে একটি দল তৈরি করেছিলেন আনন্দ। অর্থের জন্য পিছিয়ে পড়া এই ছেলেমেয়েদের শিক্ষার মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনাই ছিল আনন্দ কুমারের উদ্দেশ্য। এই চরিত্রটিতেই অভিনয় করেছেন হৃতিক। 

হৃতিক ছবিটি প্রসঙ্গে বলেন, সুপার ৩০ আমার কাছে অন্য়তম চ্যালেঞ্জিং ছবি। আনন্দ কুমারের চরিত্রের মধ্যে ঢোকা আমার কাছে চ্যালেঞ্জিং ছিল। ওর সঙ্গে দেখা করার আগে আমার নিজের একটা ধারণা ছিল। আমার এই ধারণা যাতে  ভেঙে না যায় তাই প্রথমটায় দেখাও করতে চাইনি। কিন্তু কিন্তু ওর সঙ্গে দেখা করে বুঝলাম আমার ধারণাটাকেই ও আরও সুন্দর হয়ে উঠেছে।