ছবি মুক্তির দশ দিনের মাথায় বক্স অফিসে একশো কোটির ক্লাবে জায়গা করে নিল হৃত্বিক রোশন অভিনীত ছবি সুপার থার্টি। ১২ই জুলাই মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। দ্বিতীয় সপ্তাহতেই এই ছবি প্রবেশ করল এই ক্লাবে। হৃত্বিক রোশনের জন্য এযেন এক কাম ব্যাক ছবি। কবীর সিং-এর পর আবার বক্স অফিসে সাফল্য গড়ার পথে সুপার থার্টি। চলতি বছরে বলিউডে বেশ কয়েকটি ছবিই একশো কোটির ক্লাবে নিজের জায়গা পাকা করে নিয়েছে। সেই তালিকায় এবার নাম লেখাল সুপার থার্টি। এর আগে ব্যাঙ্গ ব্যাঙ্গ, কৃষ ত্রি ও অগ্নিপথ একশো কোটির ক্লাবে নিজের জায়গা করে নিয়েছিল। 

আরও পড়ুনঃ বিহারের পর এবার পালা রাজস্থানের, ট্যাক্সের আওতায় থাকছে না সুপার থার্টি

সুপার থার্টি ছবি মুক্তির আগে থেকেই খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিল বেশ কয়েকবার। আনন্দ কুমারের অবদানবকে কেন্দ্র করেই লেখা হয়েছিল ছবির চিত্রনাট্য। মেধাবী অথচ আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়েছে এই ধরনের ছাত্রছাত্রীদের আইআইটি প্রবেশিকা পরীক্ষার জন্য অত্যাধুনিক কৌশলে তৈরি করতেন তিনি। এই ছবি দেশের সব পড়ুয়াদের অনুপ্রাণিত করার ক্ষমতা রাখে, এই মর্মেই বিহার ও রাজস্থানে ট্যাক্স ফ্রিও করে দেওয়া হয়েছে এই ছবিকে। 

প্রথম সপ্তাহতেই নজির গড়া সাফল্য লক্ষ করা যায় সুপার থার্টির। মুক্তি পাওয়ার প্রথম তিন দিনেই তা নিজের সংগ্রহে রাখে ৭৫ কোটি টাকা। সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই সেই অঙ্ক গিয়ে দাঁড়ায় ১০০ কোটিতে। দ্বিতীয় সপ্তাহে নিজের দক্ষলে রাখল এই ছবি প্রায় ২৫ কোটি টাকা। শুক্রবার ৪.৫২ কোটি, শনিবার ৮.৫৩ কোটি ও রবিবার ১১.৬৮ কোটি টাকার ব্যবসা করে সুপার থার্টি। ফলেই ছবিকে ঘিরে এখন অভিনেতার আশা বাড়ছে, সমালোচকদের অনুমান এই ছবি হৃত্বিক রোশনের করা এখনও পর্যন্ত ছবির মধ্যে সর্বাধিক মুনাফা উপার্যন করবে।