চোখে মুখ দেখে বোঝার উপায় নেই তিনি দীপিকা পাড়ুকোন। সর্বত্র অ্যাসিড আক্রান্তের ছাপ। না,সত্যি করে তিনি অ্যাসিড আক্রান্ত নন। তাঁর পরর্বতী ছবি 'ছপক'-এর জন্য তিনি প্রস্হেটিক মেক-আপের সাহায্যে তিনি হয়ে উঠেছেন মালতী। অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়ালের চরিত্রে দেখা যাবে দীপিকা পাড়ুকোন-কে। ছবিতে তাঁর নাম মালতী। 

প্রতিদিন চার ঘন্টার চেষ্টায় দীপিকা হয়ে উঠতেন মালতী। সবটাই প্রস্হেটিক মেক-আপের সাহায্যে। মেক-আপ দেখে বোঝার উপায় নেই তিনি দীপিকা। দিল্লিতে বেশির ভাগ ছবিটির শ্যুটিং হয়েছে। দীপিকার এই লুক দেখে চমকে গিয়েছিলেন সকলে। দীপিকা জানিয়েছেন শ্যুটিং-এর শেষে তিনি সেই প্রস্হেটিক মেক-আপ জ্বালিয়ে দিয়েছেন। তবে হঠাৎ এই সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছিলেন তিনি। এপ্রসঙ্গে দীপিকা জানান তিনি যে চরিত্র করেন সেই চরিত্রকে অনুভব করে ফুটিয়ে তোলেন। তাই
এই ছবির শেষেও তিনি চাননি এই প্রস্হেটিক মেক-আপ মেক-আপকে বাঁচিয়ে রাখতে। সে 'পদ্মাবত' হোক বা 'রামলীলা' সবেতেই সাবলীল অভিনয়ে নজর কেড়েছেন তিনি। এই ছবির শ্যুটিং এ গিয়েও তিনি চোখের জল ফেলেছেন বহুবার। ছবির চিত্রনাট্য শোনার পরও তিনি কেঁদে ফেলেছিলেন। 

ছবিটির পরিচালনা করেছেন মেঘনা গুলজার। দীপিকার এই লুক দেখে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষীও জানিয়েছিলেন তাঁর প্রতিক্রিয়া। দীপিকা পাড়ুকোন-এর প্রস্হেটিক মেক-আপের পেছনে রয়েছেন ক্লোভার। এর আগেও তিনি সঞ্জুতে তিনি রণবীর কাপুরের মেক-আপে নজর কেড়েছেন। রীতিমত অনেক হোম-ওর্য়াক করে তিনি এই চরিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে  ২০২০ সালের ১০ জানুয়ারী মুক্তি পাবে ছবিটি।