আত্মহত্যায় সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই একের পর এক তাঁর নিথর দেহের ছবি ক্রমশ ভাইরাল হয়ে চলেছে নেটদুনিয়ায়। এমনকি বিকৃত মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে একাংশ নেটিজেন। তৈরি করা হয়েছে তাঁর ছবির মিম এবং ভিডিও। অধিকাংশ মানুষ এর বিরোধিতা, নিন্দা করলেও তাদের থামার নেই। বরং অন্যান্য জায়গায় ক্রমাগত ছড়িয়ে দিচ্ছে ছবিগুলি। এবার এই নিন্দনীয় কাজের বিরুদ্ধে নেওয়া হচ্ছে আইনি পদক্ষেপ। মহারাষ্ট্র সাইবার সেলের পক্ষে থেকে ট্যুইটে জানানো হয়েছে সেই সকল নেটিজেনদের ব্যক্তিগতভাবে মেসেজ করা হবে ছবিগুলি ডিলিট করানোর জন্য। আদেশের অমান্য করলেই নেওয়া হবে আইনি পদক্ষেপ।

আরও পড়ুনঃদেওর সুশান্তের প্রয়াণের শোক নিতে পারলেন না, পুর্ণিয়াতে মৃত্যু বউদির

এবার এক নিউজ চ্যানেলের পড়ল আইনি বিপাকে। সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে ভুয়ো তথ্যা ছড়ায় বলে দাবি অ্যাডভোকেট মোহিত সিংয়ের। তিনি সেই চ্যানেলকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। অভিনেতার মৃত্যুকে 'হিট উইকেট' বলে হেডলাইনে চালানো হয়েছে টিভির পর্দায়। যা দেখে নিন্দায় ভরে গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। নেটিজেনের দাবি, ব্যবসা, টাকার জন্য কতটা নিচে নামতে পারে মানুষ। একজনে মর্মান্তিক মৃত্যুর এইভাবে অতিনাটকীয় করে দেখাচ্ছে খবরে। এরপরই বিষয় মোহিত সিংয়ের কাছে পৌঁছতেই আইনি নোটিশ পাঠান সেই চ্যানেলের সম্পাদকের কাছে। প্রসঙ্গত, এই খবরের পাশাপাশি ছবিটি নিয়েও প্রতিবাদ শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

আরও পড়ুনঃ'আমি জানতাম সুশান্ত এমন কিছু একটা করবে', সব জেনেও নীরবে ছিলেন কেন, প্রশ্ন তুললেন বাবুল

জানা গিয়েছে, ছবিটি তোলা হয়েছে অ্যাম্বুলেন্স আসার আগে। বাড়ির পরিচারিকাই প্রথম সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। সেই পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশকে খবর দেওয়ার পরই এই ছবিটি তোলা হয়েছে। যেখানে খাটে শুয়ে থাকা সুশান্তের নিথর দেহ দেখা যাচ্ছে। এবং তাঁর গলায় রক্তের চাপ দাগ। যা দেখলে আর ভোলা সম্ভব নয় মানুষের পক্ষে। তাঁর এই ছবি অধিকাংশ মানুষ নৃশংসের মত শেয়ার করে রেস্ট ইন পিস লিখছে। কোনও সাধারণ মানুষের পক্ষে এমনটা করা কীকরে সম্ভব জানা নেই। এই কাজটির তীব্র নিন্দা করেছেন সোনু সুদ। ট্যুইট করে সকলের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন এমন কাজটি না করার জন্য।