আত্মহত্যায় সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই একের পর এক তাঁর নিথর দেহের ছবি ক্রমশ ভাইরাল হয়ে চলেছে নেটদুনিয়ায়। এমনকি বিকৃত মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে একাংশ নেটিজেন। তৈরি করা হয়েছে তাঁর ছবির মিম এবং ভিডিও। অধিকাংশ মানুষ এর বিরোধিতা, নিন্দা করলেও তাদের থামার নেই। বরং অন্যান্য জায়গায় ক্রমাগত ছড়িয়ে দিচ্ছে ছবিগুলি। এবার এই নিন্দনীয় কাজের বিরুদ্ধে নেওয়া হচ্ছে আইনি পদক্ষেপ। মহারাষ্ট্র সাইবার সেলের পক্ষে থেকে ট্যুইটে জানানো হয়েছে সেই সকল নেটিজেনদের ব্যক্তিগতভাবে মেসেজ করা হবে ছবিগুলি ডিলিট করানোর জন্য। আদেশের অমান্য করলেই নেওয়া হবে আইনি পদক্ষেপ।

আরও পড়ুনঃআগে যদি রাধুনি কড়া নাড়ত, তাহলে কি সুশান্তের এই পরিস্থিতি হত, প্রকাশ্যে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

ছবিটি তোলা হয়েছে অ্যাম্বুলেন্স আসার আগে। জানা গিয়েছে, বাড়ির পরিচারিকাই প্রথম সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। সেই পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশকে খবর দেওয়ার পরই এই ছবিটি তোলা হয়েছে। যেখানে খাটে শুয়ে থাকা সুশান্তের নিথর দেহ দেখা যাচ্ছে। এবং তাঁর গলায় রক্তের চাপ দাগ। যা দেখলে আর ভোলা সম্ভব নয় মানুষের পক্ষে। তাঁর এই ছবি অধিকাংশ মানুষ নৃশংসের মত শেয়ার করে রেস্ট ইন পিস লিখছে। কোনও সাধারণ মানুষের পক্ষে এমনটা করা কীকরে সম্ভব জানা নেই। এই কাজটির তীব্র নিন্দা করেছেন সোনু সুদ। ট্যুইট করে সকলের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন এমন কাজটি না করার জন্য। 

আরও পড়ুনঃসুশান্তের মৃত্যু কি একটুও মর্মান্তিক নয় রিয়ার কাছে, খাবারের ছবি পোস্ট করে ডিলিট করলেন নিন্দার ভয়

 

অত্যন্ত দুঃখজনক একজন প্রাণোবন্ত অভিনেতার মৃত্যু। তাঁর মৃত্যুর পর শেষ মূহূর্তের ছবি এভাবে ভাইরাল হওয়ার কোনও মানে হয় না। তিনি ট্যুইটে লেখেন, "আজ আমরা একজন বন্ধু, সহকর্মীকে হারিয়েছি। এই দুঃখের কোনও অন্ত নেই। আমি সংবাদমাধ্যমের কাছে অনুরোধ জানাবো তাঁর মৃ্ত্য নিয়ে অপ্রয়োজনীয় চাঞ্চল্য না ছড়াতে। পাশাপাশি সকল মানুষকে অনুরোধ জানাতে চাই, দয়া করে তাঁর শেষ চিত্রগুলি শেয়ার করা বন্ধ করুন। একটা ছেলে দু'চোখে অনেক স্বপ্ন নিয়ে এসেছিল। অনেক কিছু অর্জনও করেছে। তাঁকে একটু শান্তিতে যেতে দিন।"