একটি ছবি বানানোর হাদজার একটা বাজেট। যার বেশিরভাগটাই চলে যায় অভিনেতা আর অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিক বাবদ। তবে অভিনয়ও তো একটা শিল্প, আর স্টারেরা সেই অর্থে শিল্পী। ফলে সব সময় কি নিয়েজের কাজ কড়ায় গণ্ডায় টাকা বুঝে নিয়েই করে থাকেন তাঁরা, না, সব সময় হয়তো এমনটা নয়। কিছু ক্ষেত্রে কেবল একটা সুন্দর চিত্রনাট্যের চাহিদাতেই ছবির জন্য রাজি হয়ে যান তারকারা। 

আরও পড়ুনঃ 'আমি আপনাদের বোকা বানাই, সেটাই আমার কাজ', ভক্তদের উদ্দেশ্যে অকপট ঋষি

কখনও কখনও সাক্ষাৎকারে স্টারেদের বলতেও শোনা যায়, তাঁরা সাফল্য পেয়েছেন অনেক, কিন্তু নিজের মনেক মতো একটা চরিত্র আজও পাওয়া হয়ে ওঠেনি। আর হাতের কাছে যদি থাকে এমনই কোনও চরিত্র তবে দরাদরি করে তা ফিরিয়ে দিতে নারাজ সকলেই। তেমনই প্রমাণ দিয়েছিলেন বেশ কয়েকজন তারকাত, ছবির নাম ছিল মান্তো। ছবির পরিচালর ছিলেন নন্দিতা দাস। 

এক সাক্ষাৎকারে নন্দিতা জানিয়েছিলেন তাঁর এই ছবি করার ইচ্ছে ছিল বহুদিন ধরেই। যখন এই ছবির চিত্রনাট্য হাতে চলে এলো তখনই তা শুনিয়েছিসাম নাওয়াজকে। তিনি এক টাকার বিনিময় ছবি করতে রাজি ছিলেন। ছবি করতে কোনও টাকাই নেননি ঋষি কাপুর। পাশাপাশি এই ছবির সঙ্গে শুক্ত থাকা সকল অভিনেতা-অভিনেত্রীরাই টাকা নেননি। নন্দিতার কথায়, ভালো ছবির খিদে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের থেকেই যায়।