বলিউডের কন্ট্রোভার্সি কুইন  বললেই একজনের নাম মাথায় আসে তিনি হলেন কঙ্গনা রানাউত। সবসময়েই কোনও না কোনও গসিপে সবার শীর্ষে উঠে আসে তার নাম। এবার থানায় অভিযোগ দায়ের হল অভিনেত্রী কঙ্গনার বিরুদ্ধে।  বিশেষ সম্প্রদায়কে 'সন্ত্রাসবাদী' অভিযোগ করায় অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। বিতর্ক যেন তার পিছু ছাড়ছে না। সম্প্রতি কয়েকদিন আগেও বোন রঙ্গোলির পক্ষে সওয়াল করেছেন কঙ্গনা। ঘৃণা-বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগে ইতিমধ্যেই যার ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করা হয়েছে। রঙ্গোলির পর কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মুম্বইনিবাসী আইনজীবী আলি কাসফ খান দেশমুখ।

আরও পড়ুন-সাংবাদিক নিগ্রহের তীব্র নিন্দা, সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব বলিউড...

পুলিশি অভিযোগ দায়ের করে আলি জানিয়েছেন, 'রঙ্গোলি গণহত্যা, হিংসার ডাক দিয়েছেন , আর কঙ্গনা দেশব্যাপী বোনের সমালোচনা করেছেন। টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড হওয়ার পরও তাকে শুধু সমর্থনই করেননি  বিশেষ সম্প্রদায়কে 'সন্ত্রাসবাদী'র তকমা দিয়েছেন অভিনেত্রী।' তিনি আরও জানিয়েছেন নিজেদের নাম, যশ প্রতিপত্তিকে কাজে লাগিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন কঙ্গনা ও তার দিদি রঙ্গোলি চান্দেল। 

আরও পড়ুন-'ভাগ্যিস সলমন সিনেমার জগতে চলে এসেছিল', কেন সচিনকে বলেছিলেন ভাইজান...

সম্প্রতি কয়েকদিন আগেইএকটি ভিডিও শেয়ার করেছেন কঙ্গনা।  আর ভিডিওটিতে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, কেউ যদি এমন একটা ট্যুইটও দেখাতে পারেন, যেখানে রঙ্গোলি কোনও আপত্তিকর কথা বলেছে, তবে আমরা দুজনেই প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইব।

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Rangoli Chandel (@rangoli_r_chandel) on Apr 18, 2020 at 2:00am PDT

 

কঙ্গনা আরও বলেন,রঙ্গোলি বলেছে, যারা ডাক্তার, পুলিশকর্মীদের গায়ে হাত তুলেছে, তাদের গুলি করে মারা উচিত। কিন্তু ফারাহ আলি খান, রিমা কাগতি মিথ্যে অভিযোগ করছেন যে, রঙ্গোলি বিশেষ কোনও সম্প্রদায়কে নিশানা করে মন্তব্য করেছে। এবং এই মন্তব্য করেই তারা রঙ্গোলিকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।