দেড় বছর আগে দুবাই থেকে শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়া মাত্রই দেশ জুড়ে ভক্তদের মধ্যে নেমে এসেছিল শোকের ছায়া। তবে অভিনেত্রীর আকষ্মিক এই মৃত্যুকে নিয়ে জল ঘোলা হয়েছিল বিস্তর। কখন, কীভাবে, কোন অবস্থায় ঘটেছিল এই মৃত্যু, প্রশ্ন উঠেছিল বিভিন্ন মহলে। কিন্তু সেই প্রশ্নের কোনও সঠিক উত্তর না মেলায় ধামাচাপা পরে যায় শ্রীদেবী মৃত্যু তদন্ত। হাইকোর্টের পক্ষ থেকেও ইতি টানা হয় এই কেসে।  তদন্তও বন্ধ করে দেওয়া হয় মাস কয়েক পর। তারপর সব স্বাভাবিক। তবে শ্রীদেবীর মৃত্যুর দেড় বছর পরও  কোথাও যেন রয়েগিয়েছিল কিন্তুন ছাপ। সেই প্রশ্ন মিটল না নেটিজেনদের মন থেকে। ফলেই বিভিন্ন মহলে এই নিয়ে জল্পনা ধামা চাপা পরেনি। তবে এবার প্রকাশ্যে আসা তথ্যে নয়া মোড় নিতে পারে এই তদন্ত।

ঠিক কী হয়েছিল ২৮ শে ফেব্রুয়ারী ২০১৮ সালে! অনেকের কাছেই এর উত্তর স্পষ্ট নয়। দুবাইতে মোহিত মারওয়ারের বিয়ে উপলক্ষে হাজির হয়েছিলেন শ্রীদেবী। শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থও ছিলেন তিনি। তবে সেখানেই স্নানঘরের বাথটবে নাকি ডুবে যান তিনি। প্রাথমিকভাবে এই খবর সকলের বিশ্বাস করতে অসুবিধে হলেও পরে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা মানুষের স্মৃতি থেকে খানিক ঝাপসা হয়ে যায়।

আরও পড়ুনঃ নতুন জল্পনা জাইরা ওয়াসিম-কে ঘিরে, বড় পর্দা থেকে বিদায় নিলেও দেখা যেতে পারে ছোট পর্দায়

তবে ঠিক কী ঘটেছিল সেই রাতে তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা। অনেকেই সেই সেই সময় দাবী তুলেছিলেন যে সুপরিকল্পিতভাবেই নাকি এই হত্যা করা হয়েছে। সেই সম্ভাবনাকেই উষ্কে দিয়ে এবার কেরলের ডিজিপি ঋষিরাজ সিং মুখ খুললেন। তিনি তার বন্ধু উমাদাথনের উল্লেখ করে জানান, তার অনুমান,- এই মৃত্যু হয়তো স্বাভাবিক নয়। অ্যাক্সিডেন্টও নয়। খুনের সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। উমাদাথন একজন ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞ। ফলেই শ্রীদেবী মৃত্যুকে ঘিরে এই তথ্য নতুন করে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করল।