২০২০ সালে গোটা দেশ তথা বলিউড তোলপাড় করে দিয়েছিল একটাই খবর, সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু। মুহূর্তে যেন সাধারণ মানুষের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছিল এই সংবাদ। কীভাবে, কেন, কী কারণ হাজার হাজার প্রশ্নে তখন ছয়লাপ গোটা সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা। চোখের জলে ভাসছে ভক্তমহল। কিছু দিনের মধ্যে কেস গিয়েছিল পাল্টে। আত্মহত্যা না খুন, এই বিচারের আশায় চোখের পলক ফেলছিলেন না কেউ। 

আরও পড়ুন- বিয়ের আগে ২৩ টা চুমু রণবীর-বাণীর, লিপলক দেখে কী প্রতিক্রিয়া ছিল দীপিকার

এরপরই শুরু হয় নাটকীয় মোড়। ক্রমেই এক ঝড় পরিণত হয় সাইক্লোনে। কিন্তু শেষমেশ কী হল সুশান্ত কেসের, সেই প্রশ্ন আজ বেজায় ফিকে। অন্যদিকে পাল্লা দিয়ে চলছে হেয়ারিং। দেটের পর দেট, তারিখের পর তারিখ, লড়াই থামায়নি তাঁদের পরিবার। বছরের প্রথমেই এই কেস কোর্টে পেল এক নয় মোড়। হাইকোর্টের বেঞ্চ জানিয়েদিল- সুশান্তের মুখ দেখে মনে হয় সুশান্ত একজন ইনোসেন্ট ও সোবার ব্যক্তি, খুব ভালো মানুষ ছিলেন। 

 

অন্যদিকে রিয়া চক্রবর্তীর এফআইআরের ভিত্তিতেও আইনি জটিলতার মুখে সুশান্তের দুই দিদি, প্রিয়ঙ্কা ও মীতু। তাঁদের উকিল বিকাশ সিং সাফ জানান, এটা একটা কাউন্টার কেস করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। উকিলের কথায় বর্তমানে বিপাকে রিয়া, কারণ তিনি শেষ দিন সুশান্তের ফোন নম্বর ব্লক করে দিয়েছিলেন, পাশাপাশি তিন ভিন্ন ভিন্ন স্টেটমেন্ট দিয়েছিলেন সুশান্তকে নিয়ে।