সময় যেন আর কাটছে না। বাড়ির-অফিসের সমস্ত কাজ সকলেই তাড়াতাড়ি করে সেরে নিচ্ছেন। কারণ একটাই। সুশান্তের শেষ ছবি 'দিল বেচারা' আর কয়েকঘন্টা পরই মুক্তি পাবে ওটিটিতে। সকলেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে বসে আছেন। ট্রেলারেই যা রেকর্ড গড়েছে,  পুরো ছবি প্রকাশ্যে আসলে কি হতে চলেছে তার আঁজ এখনই পাওয়া যাচ্ছে। ছবি ঘিরে ইতিমধ্যেই দর্শকদের উন্মাদনা তুঙ্গে। ওটিটি প্ল্যাটফর্মে ডিজনি প্লাস হটস্টারে দেখা যাবে এই ছবি। আজ ঠিক সন্ধ্যে ৭.৩০ টায় 'দিল বেচারা' স্ট্রিমিং শুরু হবে। সময়টা যেন কোনভাবেই ভুলে না যাওয়া হয়। সম্প্রতি ছবির ক্লিপিংস শেয়ার করেছেন বাঙালি অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন-২ ঘন্টা পরেই বিনামূল্যে দেখা যাবে সুশান্তের শেষ ছবি, কোথায়-কখন দেখবেন 'দিল বেচারা'...

নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ম্যানির মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে রজনীকান্ত স্যারের ধরণ, দেখতে ভুলবেন না। আজ ঠিক সন্ধ্যে ৭.৩০ টায় ডিজনি প্লাস হটস্টারে আসতে চলেছে 'দিল বেচারা'। দেখে নিন স্বস্তিকার টুইটটি,

 

 

অবশেষে আজ এল সেই দিন।  ঘড়ির কাটা থেকে যেন চোখ সড়ছে না বিশ্ববাসীর। কখন আসবে সেই মুহূর্ত। অধীর আগ্রহে প্রহর গুনছে সুশান্ত ভক্তরা। আর মাত্র ১ ঘন্টার অপেক্ষা। শেষবারের মতো রূপোলি পর্দায় জ্বলজ্বল করে উঠবে সেই হাসিমাখা মলিন মুখটা।  ছবি মুক্তি যতটা না আনন্দের, তার চেয়ে অনেক বেশি কষ্টের প্রিয় তারকাকে হারানোর যন্ত্রণা। মৃত্যুর ঠিক ৪০ দিনের মাথায় মুক্তি পাচ্ছে অভিনেতার শেষ ছবি 'দিল বেচারা'।  স্বস্তিকার সঙ্গে সুশান্তের শুটিং সেটের পাগলপান্তিও নেটদুনিয়ায় নজর কেড়েছে স্বস্তিকার। শুটিং-এর ফাঁকে কীভাবে ফ্লোর মাতিয়ে রাখতেন সুশান্ত, দেখে নিন তার একঝলক।

 

 

শুটিং চলতে চলতে কীভাবে যে কিজির মা হয়ে উঠেছেন তা নিজেও বুঝতে পারছেন না স্বস্তিকা। তিনিই যেন এখন কিজির আসল মা। স্বস্তিকা জানিয়েছেন, ছবির চরিত্রের জন্য যখন তিনি ছবি পাঠিয়েছিলেন, তখনও তার চুল ছোট ছিল,কিন্তু মুকেশ তাও তাকেই পছন্দ করেছিল। ছবিতে বাঙালি অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় কিজির মায়ের ভূমিকায় ও শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়কে বাবার ভূমিকায় দেখা যাবে।

 


জন গ্রিনের লেখা উপন্যাস 'দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টার' অবলম্বনেই তৈরি হয়েছে এই ছবি। ছবিতে ক্যান্সারে আক্রান্ত কিজি আর ক্যান্সার জয়ী ম্য়ানির ভালবাসার গল্প তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিটি মুহূ্র্তে লড়াই করে বাঁচতে শেখাবে ম্যানি। সুশান্তের জীবনের মতোই ছবিতে হ্যাপি এন্ডিং না থাকলেও এক অন্যরকম ভাললাগা রয়েছে, যা মন ছুঁয়ে যাবে সকলের। শেষবারের মতোই প্রিয় অভিনেতাকে রূপোলি পর্দায় না দেখার আক্ষেপ থাকলেও 'দিল বেচারার' স্ট্রিমিং নতুন মাইলস্টোন গড়বে ওটিটি-তে।