বলিউডে পাকাপাকিভাবে নিজের পসার জমানোর স্বপ্ন দেখছিলেন রিয়া চক্রবর্তী। কিন্তু সেখান থেকেই ঘটে ছন্দ পতন। এক দুটি ছবি করার পরই রিয়ার জীবনে নেমে আসে কালো অধ্যায়। একাধিক কেসে ফেঁসে সুশান্ত মৃত্যুক পর এক কথায় ব্ল্যাকলিস্টেড রিয়া। তবে সে সব এখন অতীত। সম্প্রতি রিয়া চক্রবর্তীর হয়ে মুখ খুলেছিলেন আলিয়া ভাটের মা, মহেশ স্ত্রী সোনি রাজধান। তিনি প্রথম বলেন, কেন সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না রিয়াকে। যদিও এর আগেই রিয়া সাইন করেছিল চেহরে ছবি। 

আরও পড়ুন- ডিভোর্স ঝড়ে নাজেহাল সইফ, এক ধাক্কায় কতটাকা দিতে হয়েছিল সারার মা অমৃতাকে 

সেই ছবিতে মুখ্য ভূমিকাতে দেখা যাবে অমিতাভ বচ্চন ও ইমরান হাসমি। পাশাপাশি এই ছবিতে দেখা যাবে ক্রিস্টাল ডিসুজা ও ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়। অথচ এই ছবিতেই রয়েছেন রিয়া চক্রবর্তী। শ্যুটিং শেষ, তবে পোস্টার মুক্তির পরই অবাক হয়েছিলেন নেটিজেন। সেই পোস্টারে জায়গা পাাননি রিয়া চক্রবর্তী। তবে কি ছবির প্রমোশনের কথা মাথায় রেখেই বা বয়কটের ভটেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল! প্রশ্ন ছিল নেটিজেনদের, নাকি ছবি থেকে বাদ পড়েছিলেন রিয়া। না, এরপর ট্রেলার মুক্তি পেতেই ভাঙে ভুল। ছবিতে রয়েছেন তিনি। 

তবে কেন বাদের সিদ্ধান্ত, ছবির প্রযোজক আনন্দ পন্ডিত জানান, রিয়া চক্রবর্তীর জীবনে নতুন ঝড় আসুন তিনি চাননি। তাঁর নামটা দেখা মাত্রই আবারও নেট দুনিয়ায় তাঁকে হেনস্তা হতে হত, সেই দিকথেকেই বিচার করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, যাতে নতুন করে রিয়ার নাম আবারও হাইলাইট করে বিপদ না নেমে আসে। ২০২০-র এপ্রিলে এই ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। করোনার কোপে তা বন্ধ হয়ে যায়। দ্বিতীয়বা এই ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ৩০ এপ্রিল। তবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে সেই দিনও বর্তমানে গেল পিছিয়ে।