এমনিতেই করোনা সংক্রমণে নাজেহাল গোটা দুনিয়া। সাম্প্রতিক সমীক্ষা বলছে স্থূল ব্যক্তিদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। আর ইউরোপের মধ্যে ব্রিটেনেই সবচেয়ে বেশি বাস মোটা লোকেদের। তাই ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় ব্রিটেনেই করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে সবচেয়ে বেশি। এই অবস্থায় মানুষকে মোটা থেকে রোগা হওয়ার জন্য ও সুস্থ থাকার জন্য সাইকেল চালানোর বিষয়টিতে জোড় দিতে চাইছে ব্রিটিশ সরকার। আর সেই কারণে ব্রিটিনে সাইকেল আরোহীদের জন্য পৃথক একটি রাস্তার সম্প্রতি উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আর তাতে ভারতের তৈরি সাইকেলে সওয়ারি হতে দেখা গেল জনসনকে।

 

 

মধ্য ইংল্যান্ডের নটিংহামেপ বিস্টনের ক্যান্সালাইড হেরিটেজ সেন্টারের সামনে থেকে সাইকেলে সওয়ারি হতে দেখা যায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে। সেই সাইকেল আবার তৈরি করেছে ভারতের হিরো সাইকেল। ৫৬ বছরের ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে সুস্থ থাকতে হাঁটার পাশাপাশি সাইকেলের গুণাগুনের কথাও তুলে ধরেন সংবাদ মাধ্যমের সামনে। 

 

 

করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়তে দেশবাসীকে স্বাস্থ্য সচেতন করার পরিকল্পনা নিয়েছে  ব্রিটেন সরকার। তার অঙ্গ হিসাবে মানুষকে সাইকেল চালানোর বিষয়ে আগ্রহী করে তুলতে চাইছে ব্রিটিশ প্রশাসন। সাইকেল যেমন একদিকে স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখে তেমনি এটি পরিবেশ দূষণের মাত্রাও কমিয়ে দেয়। 

আরও পড়ুন: ১২ আগস্টের মধ্যে আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন, দুনিয়াকে আশার আলো দেখাচ্ছে রাশিয়া

আরও পড়ুন:রাফাল না চিনের জে ২০, নাকি পাকিস্তানের এফ ১৬, দেখে নিন যুদ্ধক্ষেত্রে এগিয়ে কোনটি

এদিকে লাদাখে লাল ফৌজের আগ্রাসেনর প্রতিবাদে সম্প্রতি চিনের সঙ্গে ৯০০ কোটি টাকার চুক্তি বাতিল করেছে ভারতের সাইকেল প্রস্তুতকারী সংস্থা হিরো গোষ্ঠী। চিনা বাজারের বিকল্প হিসাবে তাই ইউরোপের বাজার ধরার পরিকল্পনা করেছিল হিরো সাইকেল। আর সেই পথে এবার খোদ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে সওয়ারি হিসাবে পেয়ে গেল ভারতীয় এই সাইকেল সংস্থা।