২৬ জানুয়ারির হিংসার পর যে আন্দোলন প্রাণ হারিয়েছিলেন সেই আন্দোলনেই প্রাণ ফিরে পেয়েছিল মধ্য রাতে কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইতের কান্নার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর। তারপর  ধীরে ধীরে আরও একবার দিল্লির উপকণ্ঠে দানাবাধতে চলেছে কৃষক আন্দোলন। পঞ্জব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ থেকে আসা অন্নদাতারা ক্রমশই প্রাণের সঞ্চার করেছেন আন্দোলনে। তাতেই নতুন কর্মসূচি ঘোষণার মত সাহস পেয়েছেন মেতারা। সংযুক্ত কৃষক মোর্চার তরফে ঘোষণা করা হয়েছে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ শনিবার দেশজুড়ে তিন ঘণ্টার জন্য  চাক্কা জ্যাম কর্মসূচি পালন করা হবে। একই সঙ্গে এদিন আন্দোলনকারী কৃষকদের পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় বাজেটেরও সমালোচনা করা হয়। 

বাজেট ঘোষণার দিনই সংসদ অভিযান কর্মসূচির কথা ছিল কৃষকদের। কিন্তু সাধারণতন্ত্র দিবসে ট্র্যাক্টর মিছিল থেকে রাজধানীর বুকে হিংসা ছড়িয়ে পড়ার পর পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি বাতিল করে দিয়েছিল কৃষক নেতারা। এদিন সন্ধ্যা নতুন কর্মসূচির কথা ঘোষণা করা হয়েছে আন্দোলনকারী কৃষকদের পক্ষ থেকে। মোর্চার তরফ থেকে বলা হয়েছে শনিবার দেশের সর্বত্র দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৩টে পর্যন্ত - তিন ঘণ্টার জন্য জাতীয় সড়ক ও হাইওয়েগুলিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে। 


আন্দোলনকারী কৃষক নেতাদের পক্ষ থেকে যোগেন্দ্র যাদব বলেন ২০২১-২২ সালের বাজেটে কৃষকদের উপেক্ষা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার এই বাজেটে কৃষি ক্ষেত্রে বরাদ্দ কমিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। একই সঙ্গে আন্দোলন স্থলে জল ও বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়ারও বিরুদ্ধেও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। আন্দোলনকারী কৃষকদের পুলিশ হয়রান করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি বলেন আন্দোলন থেকে কৃষকদের বিরত রাখতে ট্রেন ঘুরপথে চালানো হচ্ছে। কৃষকদের অভিযোগ পঞ্জাব থেকে ১ হাজার কৃষক আন্দোলনে যোগদিতে আসার জন্য পঞ্জাব মেলে উঠেছিল। ট্রেনটি রোহতকের পর ঘুরপথে মুম্বই পাঠান হয়। যদিও উত্তর রেলের মুখপাত্র জানিয়েছেন অপারেশনাল কারণেই ডাইভার্ট করা হয়েছিল। রুট।