সোমবার ইউনিয়ন বাজেট পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী।  এদিন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ জানালেন,  দীর্ঘ হাইওয়ে হবে পশ্চিমবঙ্গে। কলকাতা এবং শিলিগুড়ি রাস্তা মেরিমতিও রয়েছে বাজেটে। পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গে চা-শ্রমিকদের কল্যাণের জন্যও বড় বাজেট বরাদ্দ করেছেন এবার নির্মলা সীতারামণ।

 

 


 এদিন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ জানালেন,  পশ্চিমবঙ্গ এবং  অসমের চা-শ্রমিকদের কল্যাণের জন্য ১,০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হতে পারে। জোর দেওয়া হবে মহিলা এবং শিশুদের জন্য। পাশাপাশি ৬৭৫ কিমি হাইওয়ে হবে পশ্চিমবঙ্গে। কলকাতা এবং শিলিগুড়ি রাস্তা মেরিমতিও রয়েছে বাজেটে।  তিনি আরও বলেন, সারা দেশে ১৩ হাজার কিলোমিটার রাস্তা তৈরি হয়েছে।  অপরদিকে তৈরি হয়েছে জাতীয় রেল প্ল্যান। এর মধ্য়ে মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্প তৈরি। গোমড় থেকে ডানকুনি ২৭৪ কিমি রেলওয়ে লাইন তৈরি হবে। ভবিষ্যতে খড়গপুর থেকে স্ট্রেট করিডোর তৈরি হবে। ১০০ শতাংশ বৈদ্যুতিকরণ হবে রেলওয়েতে। কোচগুলি হবে আরও আধুনিক। থাকবে নিরাপত্তা জনিত ব্যবস্থা। ১ লক্ষ কোটির টাকা মূলধন খাতে ব্যয় হবে।  এছাড়া মেট্রো নিউ এবং মেট্র্রো লাইট নামে দুটি নতুন রেল প্রকল্প চালু করা হবে। এতে করে যুব সমাজের কর্মসংস্থানের আশা করা হচ্ছে। 

 

 

প্রসঙ্গত সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তাই সবদিকের কথাই মাথায় রেখে বাংলায় বিজেপিকে ক্ষমতায় আনতেই আরও বেশি করে খেয়াল দেওয়া হল পরিবহণ বিভাগে। একদিকে রাজ্য় সরকারের দিকে  রেশন, আম্ফানের কেলেঙ্কারি নিয়ে একের পর এক তোপ। তার উপর দল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে অনেকেই নানা প্রশ্ন তুলেছেন। কার্যত কেন্দ্রের টাকা কোথায় গেল, কেন পেল না রাজ্য, সুযোগ সুবিধা দেওয়া সত্বেও কেন তা থেকে বাদ পড়ল বাংলা, এসকল প্রশ্নের কাঠগড়ায় আগেই পড়েছে তৃণমূলের সরকার। এমনই এক বিতর্কিত পরিস্থিতিতে কার্যত অর্থমন্ত্রীর বাজেট পেশের পর বাংলার ভোট বাক্সে বড়সড় প্রভাবই পড়বে , এ নিয়ে সন্দেহ নেই রাজনৈতিক মহলের।