সোমবার (২ ফেব্রুয়ারি) সসংদে কেন্দ্রীয় বাজেট ২০২১-২২ উপস্থাপন করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। একদিকে যেমন আয়করের ক্ষেত্রে বিশেষ কোনও রদবদল ঘটানো হয়নি, অন্যদিকে পেট্রোলের উপর প্রতি লিটারে আড়াই টাকা এবং ডিজেলের উপর প্রতি লিটারে চার টাকা করে কৃষি পরিকাঠামো সেস বসানো হয়েছে। যা নিয়ে চিন্তিত সাধারণ মানুষ।

এদিন লোকসভায় অর্থমন্ত্রী জানান, কয়েকটি পণ্য়ের উপর কৃষি পরিকাঠামো ও উন্নয়ন শুল্ক (AIDC) আরোপ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে, শুল্ক প্রয়োগ করার সময়, যাদে বেশিরভাগ পণ্যের ক্ষেত্রেই গ্রাহকদের উপর অতিরিক্ত ব্যয়ের বোঝা না চাপে সেই দিকে লক্ষ্য রাখা হয়েছে বলে জানান নির্মলা সীতারমণ।

বস্তুত, পেট্রোপণ্যের উপর কৃষি সেস বসানো হলেও, পেট্রোল এবং ডিজেলের বেসিক আমদানি শুল্ক হ্রাস করার প্রস্তাবও এই বাজেটে দেওয়া হয়েছে। বাজেট পেশের পর সাংবাদিক সম্মেলনে নির্মলা সীতারমণ জানান, পেট্রোল এবং ডিজেলের উপর কৃষি অবকাঠামো ও উন্নয়ন শুল্ক আরোপ করা হলেও তাদের উপর বেসিক এক্সাইজ শুল্ক (BED) এবং বিশেষ অতিরিক্ত আবগারি শুল্ক (SAED)-র হার কমানো হয়েছে। পেট্রোল এবং ডিজেল লিটার প্রতি বিইডি রয়েছে যথাক্রমে ১.৪ টাকা এবং ১.৮ টাকা আর এসএইডি যথাক্রমে ১১ এবং ৮ টাকা। এরফলে আপাতত সামগ্রিকভাবে গ্রাহকদের পেট্রোল এবং ডিজেলের জন্য কোনও অতিরিক্ত ব্যায়বার বহন করতে হবে না।

তবে ভবিষ্যতে যে এই দাম আর বাড়বে না, তেমন কোনও উল্লেখ করা হয়নি বাজেটে। ইতিমধ্যেই দেশে গত কয়েক মাসে ৭ বার পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ঘটেছে। অথচ ওই একই সময়ে বিশ্বের বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম কমেছে। আর পেট্রোপন্যের মূল্যবৃদ্ধি মানে সব পণ্য়েরই পরিবহন খরচ বৃদ্ধি। তাতে সকল নিত্য ব্যবহার্য জিনিসেরই দাম বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে আপাতত, কৃষি সেস-এর জন্য কোনও মূল্যবৃদ্ধি ঘটছে না।