পত্রলেখা বসু চন্দ্র: খণ্ডঘোষ থানার একসঙ্গে ১৮ জন পুলিশ কর্মীর করোনা রিপোর্ট পজেটিভ। পাশাপাশি ওই থানার ওসি এই নিয়ে দুবার করোনা আক্রান্ত। থানার কাজ চলছে পাশের একটি বিল্ডিং থেকে। 

করোনা সংক্রমণ যখন বৃদ্ধি পাচ্ছে সেই পরিস্থিতিতেও হাসিমুখে কাজ করে চলেছেন পুলিশকর্মীরা। সাধারণ মানুষের যাতে কোন অসুবিধা না হয় যাতে মানুষ সুরক্ষিত থাকেন তার জন্য কাজ করে চলেছেন সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে লড়াই চালাচ্ছেন পুলিশকর্মীরা। মাইক নিয়ে মানুষকে সচেতন করছেন তারাই।  সেই পরিস্থিতিতে পূর্ব বর্ধমানের একের পর এক পুলিশকর্মী আক্রান্তের খবরে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার খণ্ডঘোষ থানায়  দু'দিনে 18 জন পুলিশ কর্মীর রিপোর্ট পজেটিভ। তারমধ্যে থানার ওসি দ্বিতীয় বার আক্রান্ত হলেন। প্রথমবার আক্রান্ত হয়েছিলেন কয়েকদিন আগে। সুস্থ হয়ে কাজে যোগ দিয়েছিলেন। এই ঘটনার পরই  বন্ধ করে দেওয়া হয় খণ্ডঘোষ থানার মেনগেট। জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে তিন দিন থানার ভবনটিতে কাজ বন্ধ থাকবে। এই তিন দিন সম্পূর্ণ বিল্ডিং স্যানিটাইজড  করার কাজ চলবে। 

পরিষেবা সচল রাখার জন্য থানার পাশে একটি অনুষ্ঠান বাড়ির বিল্ডিং থেকে আপাতত কাজ  করা হবে। যেহেতু থানার এসআই এসআই সহ 18 জন আক্রান্ত তাই কাজকর্ম স্বাভাবিক রাখার জন্য জেলা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়েছে ওই থানায়। দায়িত্বপ্রাপ্ত ওসি সুস্থ হয়ে ফিরে না আসা পর্যন্ত এই থানা সামলাবেন ওই থানারই প্রাক্তন ওসি সঞ্জয় রায়।

জেলা প্রশাসনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত শনিবার পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমান জেলায় মোট আক্রান্ত-২১৪৫ জন,চিকিৎসাধীন- ৩৯২ জন,সুস্থ- ১৭১৪ জন,মৃত্যু- ৩৯ জন।