পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান- চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠল পূ্র্ব বর্ধমানের কাটোয়ায়। কলেজের অধ্যাপকদের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে পরীক্ষায় বেশি নম্বর দেওয়ার অভিযোগ। প্রকাশ্যে এসেছে ছাত্রদের সঙ্গে কথা বলার অডিও ক্লিপিং এবং হোয়াটসঅ্য়াপ চ্যাট। ঘটনাটি ঘটেছে কাটোয়া কলেজের জুওলজি বিভাগে। শুধু তাই নয়, বিভাগীয় প্রধানের বিরুদ্ধে এক ছাত্রী কুপ্রস্তাব ও অশ্লিল ভিডিও এবং কুরুচিকর ম্যাসেজে পাঠানোরও অভিযোগ।

আরও পড়ুন-পাহাড় থেকে জাতীয় সড়কে পড়ল পাথর, সেবক সহ সিকিমের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ

কাটোয়া কলেজে জুওলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহ তিন জন অধ্য়াপকের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। অডিও ক্লিপিং, অশ্লিল ভিডিও, হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের স্কিনশট সহ সমস্ত তথ্য়প্রমাণ কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দেয় ছাত্র-ছাত্রীরা। 

আরও পড়ুন-'লকডাউন করে লাভ হচ্ছে না, বিজেপিকে আটকানো চেষ্টা', বর্ধমানে বিস্ফোরক দিলীপ

একটি কথোপকোথনে অডিও ক্লিপিংয়ে শোনা যাচ্ছে, ''মেধাবী ছাত্র কী করে পরীক্ষার খাতায় বেশি নম্বর পায় দেখে নেব। প্রয়োজনে উত্তরপত্রের পাতা ছিঁড়ে দেওয়া হবে''।  ওই অধ্য়াপকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন জুওলজি বিভাগের চার পড়ুয়া। তাঁদের অভিযোগ, দুই হাজার টাকা টিউশন ফি সহ প্রতি পেপারে ৫০০ টাকা করে মোট চার হাজার টাকা দাবি করেছেন অধ্য়াপকরা। 

আরও পড়ুন-'রেলগেট বন্ধ হলে ১৫ কিলোমিটার ঘুরপথ', প্রতিবাদে অবস্থান বিক্ষোভ মুরারইয়ের বাসিন্দাদের

কলেজ পরিচালন সমিতির সদস্য তথা বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ ঘোষ জানান, গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে, অভিযোগ প্রমাণ হলে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে কলেজ কর্তৃপক্ষ। কলেজের অধ্য়ক্ষ নির্মলেন্দু সরকার বলেন, ''সমস্ত তথ্য় প্রমাণ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হবে। অভিযোগ প্রমাণ হলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে''।

জুওলজি বিভাগের প্রধান নির্ভীক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের দাবি, তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক চক্রান্ত চলছে। তিনি তৃণমূল সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত বলে তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে বলেও দাবি করেন তিনি।