পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান-করোনা আবহের মধ্যে ধান বিক্রিতে সরকারি সহায়ক মূল্য দাবি করলেন চাষিরা। ন্যায্য মূল্যে বিক্রির ধান বিক্রির দাবিতে বৃহস্পতিবার রাইস মিলের সামনে দিনভর বিক্ষোভ দেখান। শুধু তাই নয়, নিজেদের দাবি জানিয়ে মিলের রাস্তা কেটে বিক্ষোভ দেখান চাষিরা। 

আরও পড়ুন-ভিলেন করোনাভাইরাস, এবছর নমো নমো করেই চন্দননগরের জগদ্ধাত্রী পুজো

ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে। স্থানীয় দক্ষিণেশ্বর রাইস মিলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিক্ষোভ দেখানো হয়। বিক্ষোভ দেখান গলিগ্রাম, মথুরাপুর ও অনুরাগপুর গ্রামের চাষীরা। রাইস মিল কর্তৃপক্ষ সরকারি দামে চাষিদের ধান নিতে অস্বীকার করায় জেসিবি দিয়ে মিলের রাস্তা কেটে প্রতিবাদ জানালেন তাঁরা। প্রথমে বিক্ষোভ ও পরে অবস্থান বিক্ষোভ করেন চাষিরা। তারপরও মিল কর্তৃপক্ষ কর্ণপাত না করায় মিলের সামনের রাস্তা জেসিবি কেটে দিয়ে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা।

আরও পড়ুন-বাড়ির পাশে কৃত্রিম জলাধারে ছটপুজোর অয়োজন, সচেতনতার নজির রায়গঞ্জে

তাঁদের দাবি, ২ রা নভেম্বর থেকে সরকারি সহায়ক মূল্য ধান ক্রয়ের নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য সরকার। কয়েকদিন পূর্বে ধান কাটাও শুরু হয়েছে। অভিযোগ, গলিগ্রাম লাগোয়া দক্ষিণেশ্বর রাইস মিল চাষীদের থেকে ধান ক্রয় করতে অস্বীকার করে। আরও অভিযোগ, এই এলাকার তিনটি রাইস মিলের বর্জ. জল ও ছাইয়ে চাষিদের বিঘার পর বিঘা জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। গ্রামে মিলের ছাই গুড়ো ঢুকে গ্রাম্য পরিবেশ দুষিত করে। এই অবস্থায় দুটি মিল তাদের ধান কিনবে বলে প্রতিশ্রুতি দিলেও দক্ষিণেশ্বর রাইস মিল কিনতে চাইছে না।  তাঁদের বক্তব্য,  তাদের ধান কিনতে হবে নচেৎ মিল বন্ধ করতে হবে।