আকণ্ঠ মদ্যপান করার পর আর হুঁশ ছিল না তার। শেষ কিনা অন্য বাড়িতে ঢুকে ছাগলকে ধর্ষণ করল এক যুবক! হুলুস্থুলু কাণ্ড পূর্ব কালনায়। অভিযুক্তকে হাতনাতে ধরে ফেলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। চলে গণধোলাই। খবর পেয়ে ওই যুবককে উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। হাসপাতালে ভর্তি সে।

আরও পড়ুন: হঠাৎই অ্যাকাউন্টে ঢুকছে হাজার হাজার টাকা, দেখে হতবাক গ্রাহক

কালনার সাহাপুর গ্রামে টিকে পাড়ায় থাকেন ভোম্বল মান্ডি। পশুপালন করেই সংসার চলে তাঁর। মঙ্গলবার সকালে মাঠে কাজ করতে গিয়েছিলেন ভোম্বল। পোষা ছাগলটি বাঁধা ছিল বাড়িতেই। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, অবলা পশুটিকে একা দেখেই ভোম্বলের বাড়িতে ঢুকে পড়ে কৃষ্ণ হালদার নামে প্রতিবেশী এক যুবক। মদ্যপ অবস্থায় ছাগলটিকে একাধিকবার ধর্ষণ করে সে। পশুটি যখন চিৎকার করছিল, তখন ভোম্বলের বাড়ির পাশ দিয়ে বেশ কয়েকজন মহিলা ও পুরুষ যাচ্ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। হাতনাতে কৃষ্ণকে ধরে ফেলেন তাঁরা।  শুরু হয় গণপিটুনি।  শেষপর্যন্ত কৃষ্ণ হালদারকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। 

আরও পড়ুন: বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডেঙ্গুর খোঁজ নেওয়ার কথা যাঁদের, তাঁরাই মাসখানেক ধরে ধরনায়

আরও পড়ুন: দেশের আর কোথাও দেখা যায় না এই জাগ্রত পঞ্চমুখী শিবের মূর্তি

গণপিটুনিতে গুরুতর জখম হয়েছেন কালনার পূর্ব সাহাপুরের কালীতলার বাসিন্দা অভিযুক্ত কৃষ্ণ হালদার। তাকে ভর্তি করা হয়েছে কালনা মহকুমা হাসপাতালে। অভিযুক্তের সাফাই, সে নাকি ভুলবশত এমন কাজ করে ফেলেছে।