লকডাউনের মধ্যেই ফের সুখবর।  আজ থেকেই বদলে যাচ্ছে একাধিক  নিয়ম। ১ লা নভেম্বর থেকেই বড়সড় রদবদল হতে চলেছে একাধিক নিয়মে। যার সরাসরি প্রভাব পড়তে চলেছে মধ্যবিত্তের পকেটে। এলপিজি রান্নার গ্যাসে এই মাসে কোন রদবদল না করারই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকারি তেল সংস্থাগুলি। অগ্নিমূল্য বাজারে সব জিনিসের দাম বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গ্যাসের দাম অপরিবর্তিত থাকায় স্বস্তিতে সাধারণ মানুষ।

 

 

দেশের তেল সংস্থা এইচপিসিএল, বিপিসিএল, এবং এলওসি  ভর্তুকিহীন গ্যাসের দাম অপরিবর্তিত রেখেছে। এই খবর শোনা মাত্রই মধ্যবিত্তের হেঁশেলে যেন স্বস্তি ফিরে এসেছে। এর আদে শেষবার  ১৪ কিলোগ্রাম রান্নার গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ৪ টাকা বাড়ানো হয়েছিল। দিল্লিতে ১৪.২ কিলোগ্রাম ভর্তুকিহীন এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ১১.৫০ টাকা বাড়ানো হয়েছিল।

 

 

এছাড়া অন্যদিকে ১৯ কিলোগ্রাম সিলিন্ডারের দাম বাড়ানো হয়েছে। নতুন দামের তথ্য অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি চেন্নাইয়ে দাম বেড়েছে। সিলিন্ডার প্রতি ৭৮ টাকা করে বেড়েছে। কলকাতাতেও একই টাকা বেড়েছে। যা দাম বেড়ে হয়েছে ১২৯৬ টাকা। এই রান্নার গ্যাস কমার ফলে সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষ সকলেই উপকৃত হয়েছেন। অন্যদিকে ১ লা নভেম্বর থেকে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের ডেলিভারির পদ্ধতিও বদলে গিয়েছে। গ্যাস বুকিংয়ের পর গ্রাহকদের মোবাইলে ওটিপি পাঠানো হবে। এবং সিলিন্ডার ডেলিভারির সময় তা ডেলিভার বয়কে দিতে হবে। কোড মিললেই গ্রাহকদের সিলিন্ডার দেওয়া হবে।