করোনা রুখতে গোটা বিশ্বে চালু হয়েছে লকডাউন। এই মুহূর্তে সবথেকে বেশি জালিয়াতির ঘটনা বেড়েই চলেছে। কখন নিজের অজান্তে বিপদ ঘটে যায় তা কেউই টের পায় না। বর্তমান পরিস্থিতিতে কোটি কোটি গ্রাহকদের সাইবার ক্রাইম নিয়ে সতর্ক করল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ৷ বাড়িতে বসেই আততায়ীরা লুট করে নিচ্ছেন হাজার হাজার টাকা। এতদিন ধরে হাজার হাজার টাকা নিয়ে গ্রাহকদের বোকা বানিয়েছে দুষ্কৃতিরা। অনলাইনের মধ্যে প্রতারণার শিকার হয়েছে লক্ষ লক্ষ মানুষ।বিভিন্ন ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষ গ্রাহকদের সর্তক করার জন্য বিশেষ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে।

আরও পড়ুন-রেশন কার্ডের নয়া নিয়মটি মনে আছে তো, নাহলে পড়তে পারেন বড়সড় বিপদে...

আরবিআই-এর পক্ষ থেকে ট্যুইট করে জানানো হয়েছে,গ্রাহকরা যাতে ভুল করেও কোনও ফোন কল, ই-মেল বা এসএমএস-এ তাদের ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার না করেন ৷ পাশাপাশি সন্দেহ হলে ব্যাঙ্কের সরকারি ওয়েবসাইটে গিয়ে চেক করে নিন কাস্টমার নম্বর। কারণ যে কোনও মুহূর্তেই এই জালিয়াতির শিকার হতে পারেন আপনি।বিশেষ করে নিজেদের ব্যক্তিগত তথ্য যেমন,  আধার নম্বর,প্যান নম্বর কার্ডের ডিটেল, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ভুল করেওও কাউকে ফোন অথবা এসএমএস বা ইমেলে পাঠাবেন না ৷ রিজার্ভ ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে যে যদি কেউ ফোন করে কেওয়াইসি-র জন্য তথ্য চায় সঙ্গে সঙ্গে ফোন কেটে দিন ৷ কারণ আপনি জানতেও পারবেন না যে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়েছেন ৷ 

 

 

আরটিআই-এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী,গত আর্থিক বছর  ১৮টি সরকারি ব্যাঙ্কে মোট ১,৪৮,৪২৮ কোটি টাকার ১২,৪৬১ টি প্রতারণার মামলা সামনে এসেছে ৷ সাইবার ক্রাইমের সবচেয়ে বড় শিকার হয়েছে দেশের সবচেয়ে বড় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ৷ ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে স্টেট ব্যাঙ্কের ৪৪,৬১২.৯৩ কোটি টাকার ৬,৯৬৪ প্রতারণার মামলা সামনে এসেছে ৷ সম্প্রতি কিছুদিন আগেই কীভাবে লকডাউনের মধ্যে নিজের টাকা সুরক্ষিত রাখবেন সেই স্মার্ট টিপস  দিয়েছিল এসবিআই। 

আরও পড়ুন-এই রোগগুলির কারণেই কি মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ছে করোনায়, আপনার নেই তো...

 

স্টেট ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে ট্যুইটে জানানো হয়েছে  এটিএম মেশিনে পিন নম্বর এন্টার করার সময় অবশ্যই কি-প্যাড ঢেকে নেবেন ৷ নিজের ডেট অব বার্থ বা কারোর জন্মদিনের সাল কখনওই পিন নম্বরে রাখবেন না ৷ এটিএম মেশিনে টাকা তোলার আগে দেখে নিন যে অপরাধীরা কোথাও কোনও লুকানো ক্যামেরা সেখানে লাগিয়ে রেখেছে কিনা ৷ অর্থাৎ টাকা তোলার আগে চারপাশটা একবার দেখে নিন। এসবিআই-এর  মিসড কল ব্যাঙ্কিংয়ের বিকল্প সিলেক্ট করুন ৷ নিজের ব্যক্তিগত ওটিপি, ডেবিড কার্ডের পাসওয়ার্ড ভুলেও কাউকে জানাবেন না । কোনও এসএমএস, ইমেল বা কলের জবাব চাইলে তাড়াহুড়ো করে দিয়ে দেবেন না।  আর যদি আপনার পিন বা অন্য কোনও গোপন তথ্য জানতে চাওয়া হয় তাহলে তা এড়িয়ে চলুন ৷