করোনা রুখতে ইতিমধ্যেই চতু্র্থ দফার লকডাউন শুরু হয়েছে। লকডাউনের মধ্যে স্বস্তির খবর। শহরের রাস্তায় নামতে চলেছে ওলা-উবের। অনলাইন অ্যাপ ক্যাবের মাধ্যমে ফের পরিষেবা পাবেন সাধারণ মানুষ। তবে দেশের সমস্ত জায়গায় নয়, বেশ কয়েকটি জায়গায় চালু হয়েছে এই পরিষেবা। বিশেষ করে অরেঞ্জ ও গ্রিন জোনে পরিষেবা চালু করেছে ওলা-উবের। সম্প্রতি অনলাইন ক্যাব পরিষেবা সংস্থা উবের নয়া নির্দেশিকা জারি করল যাত্রী ও ক্যাব চালকদের জন্য। এবার থেকে উবের চড়লেই মানতে হবে এই সব নিয়ম।

আরও পড়ুন-এক সপ্তাহের রেকর্ড ছাঁপিয়ে আকাশছোঁয়া দাম বাড়ল সোনার, জানুন কলকাতায় কত...


ইতিমধ্যেই উবের পুল অর্থাৎ শেয়ার ক্যাব পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে এই সংস্থা। কারণ একই ক্যাবে দুজন যাত্রীর বেশি চড়বে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র। সংস্থার পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, ক্যাবের সামনের আসনে অর্থাৎ চালকের বাঁদিকে কোনও যাত্রী  এবার থেকে  আর বসতে পারবেন না। গাড়ি চালানোর সময় চালককে মাস্ক অবশ্যই পড়তে হবে।  যদি কোনও চালক মাস্ক না পরেন, তাহলেযাত্রী তার যাত্রা বাতিল করতে পারেন। নির্দেশিকায় আরও জানানো হয়েছে ফ্রেশ এয়ার মোডে গাড়ির ভিতরে চালানো যাবে এয়ার কন্ডিশনার। তবে  যাত্রীদের ব্যাগ এবং নিজস্ব জিনিসপত্র তাদের নিজেদেরকেই বহন করতে হবে। 

আরও পড়ুন-ক্রমশ নিস্তেজ হচ্ছে সূর্য, ধারাবাহিক ভূমিকম্প ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের...


গাড়ির চালকদের জন্য থ্রি স্টেপ চেকলিস্ট জারি করা হয়েছে । এছাড়াও উবের জানিয়েছে ক্যাবচালককে গাড়ি বারবার জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। ড্রাইভার অ্যাপে রাখতে হবে কোভিড হাব। ক্যাব চালক যে মাস্ক পরেছেন, তার প্রমাণের জন্য প্রতিটি যাত্রা শুরুর আগে নিজের ছবি আপলোড করতে হবে। তবেই তিনি যাত্রা শুরু করতে পারবেন, নয়তো যাত্রা বাতিল করা হবে। ঠিক একই ভাবে, যাত্রীরা যদি মাস্ক না পরে থাকেন, তবে চালকও  সেই ট্রিপ বাতিল করে দিতে পারেন বলে জানিয়েছে উবের। প্রতিটি ট্রিপের আগে গাড়ি স্যানিটাইজ করতে হবে । বিশেষ করে গাড়ির আসন, দরজার হাতল, জানলা ভাল করে স্যানিটাইজ করে নিতে হবে। এছাড়া উবের চালকের মোবাইলে আরোগ্য সেতু অ্যাপ রাখতে হবে । রেড জোনে এই মুহূর্তেই কোনও পরিষেবা চালু করার অনুমতি দেয়নি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। চতুর্থ দফার লকডাউনে অনেকটাই শিথিলতা আনা হয়েছে। রাজ্যে গাড়ি চলাচল শুরু হলেও বন্ধ থাকবে ট্রেন, বিমান ও মেট্রো চলাচল।