ভারতের পণ্যকে বিশ্বের দরবারে বেশি করে পৌঁছে দেওয়ার জন্য এগিয়ে এল বহুজাতিক সংস্থা ওয়ালমার্ট। সংস্থার পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানান হয়েছে, ভারতে আরও বেশি পরিমাণে পণ্য তারা বিশ্বের ক্রেতাদের কাছে ছড়িয়ে দেয়ে। ২০২৭ সালের মধ্যে ভারতীয় পণ্যের রফতানি পণ্য তিনগুণ করে ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছে দেবে তারা। 

ওয়ালমার্টের এই উদ্যোগে রয়েছে রয়েছে ফ্লিপকার্টও। সংস্থাটির এই উদ্যোগ ভারতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকে রীতিমত উৎসাহ যোগাবে বলেও আশা করা হয়েছে। করোনা মহামারির এই সময় থেকেই বিশ্বব্যাপী ভারতীয় পণ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার তৈরির করার কথা বলে আসছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ওয়ালমার্টের এই উদ্যোগ তাঁর আত্মনির্ভর ভারতের স্বপ্নকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে বলেই আশা করছে সংশ্লিষ্ট মহল।ওয়ালমার্টের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, পোষাক ও গৃহসজ্জা সামগ্রী মূলত রফতানি করা হবে। পাশাপাশি গুরুত্ব দেওয়া হবে খাবার, ফার্মাসিউটিক্যালস, ভোগ্যপণ্য, স্বাস্থ্যপরিষেবার সামগ্রীর ওপর। আগামী দিনে এই তালিকায় আরও নতুন পণ্য যোগ করা হতে পারে বলেও জানান হয়েছে। 

 
আন্তর্জাতিক বাজারে খুচরো বিক্রেতা হিসেবেই পরিচিতি ওয়ালমার্টের। স্থানীয় উদ্যোক্তা ও নির্মাতাদের তৈরি সামগ্রমী বিশ্বের বাজারে ছড়িয়ে দেওয়ার এই সুযোগ কাজে লাগাতে চাইছে সংস্থাটি। আর সংস্থাটির এই উদ্যোগে দেশীয় শিল্পি ও উদ্যোগপতিরাই লাভবান হবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ভারত থেকে পণ্য সরবরাহ করেছে ওয়ালমার্ট। স্থানীয় শিল্পিদের তৈরি পণ্য আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদা পুরণ করতে পারবে বলেও মনে করছে এই সংস্থাটি। আর সেই কারণে ভারতীয় পণ্যে একটি আলাদা বাজার তৈরি করতে উদ্যোগী হয়েছে। সংস্থাটি ভারতীয় পণ্যের বিপণনের পাশাপাশি সরবরাহ চেইন পরিচালনা ও আরও বেশ কয়েকটি বিষয়ে দক্ষতা তৈরি করতে সাহায্য করবে বলেও জানান হয়েছে। ওয়ালমার্ট ইনক এর প্রধান ডগ ম্যাকমিলন বলেছেন ওয়ালমার্টের এই প্রস্তাব কাজে লাগিয়ে ভারতীয় সংস্থা ও সরবরাহকারীকা তাদের ব্যবসা বৃদ্ধির একই বিশাল সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছে।