নিজামুদ্দিনের ঘটনায় ভারতের আকাশের রীতিমত ঘনীভূত হচ্ছে কালোমেঘ। তাবলিগী সদস্যদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু করেদিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। খতিয়ে দেখা হচ্ছে সদস্যদের সফরের ইতিহাস। গত ৮-১০ মার্চ ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দিতে জড়ো হয়েছিলেন বহু সদস্যই।  কেন্দ্রীয় স্বারাষ্ট্র মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নিজামুদ্দিনে জমায়েতে অংশ নেওয়া তামিলনাড়ুর ৫০করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে। দিল্লিতে সংখ্যাটা ২৪। ২১ জন আক্রান্ত তেলাঙ্গনায়। অন্ধ্রপ্রদেশে আক্রান্ত ১০। আন্দামানের আক্রান্ত ব্যক্তিও নিজামুদ্দিনের জমায়েতে ছিলেন। অসম ও জম্মু কাশ্মীরে আক্রান্ত ১ জন করে। নিজামুদ্দিনে জড়ো হওয়া ৮২৪ জন বিদেশী পর্যটক ছিলেন যাঁরা অনুষ্ঠানের পর বিভিন্ন রাজ্যে সফর করেছেন। এই ঘটনায় রীতিমত উষ্মা প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। 

নিজামুদ্দিনের ঘটনা সামনে আসার পরই এলাকায় পরিচ্ছন্ন করার দাবি উঠেছিল। জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা  অজিত ডোভালের হস্তক্ষেপের পরই নিজামুদ্দিন এলাকা পরিষ্কার করা সম্ভব হয়েছিল। কারণ প্রথম থেকে মসজিদ পরিষ্কার বাধা দিয়ে আসছিলেন দায়িত্বপ্রায় ধর্মীয় নেতারা। ২৮ মার্চ রাত দুটে নাগাদ অজিত ডোভাল নিজামুদ্দিনের প্রধান মৌলানা সাদের সঙ্গে দেখা করেন। তারপরই মসজিদ পরিষ্কার নির্দেশ দোওয়া হয়। 

দক্ষিণ দিল্লির নিজামুদ্দিনে মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় প্রায় ২৩০০ মানুষকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছ। এই এলাকারই ১২৮ জনের শরীরে পাওয়া গেছে করোনার জীবানু। তবে এখনও প্রায়  এক হাজার মানুষ রয়েছেন ওই এলাকায়। প্রশাসন সূত্রে জানান হয়েছে শতাব্দী প্রাচিন এই মসজিদে নূন্যতম সামাজিক দূরত্ব মানা হয়নি। কিছুটা ঠেসাঠেসি করেই রয়েছেন হাজার জন মানুষ। সূত্রের খবর ৮ মার্চের অনুষ্ঠানের পরেও অনেকেই থেকে গিয়েছিলেন এই মসজিদে। কিন্তু ২২ মার্চ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জনতা কারফুর ডাক দিয়েছিলেন। তাই অনেকেই নির্ধারিত সময় ফিরে যেতে পারেননি। তারপর থেকে সামাজিক দূরত্বে আরও দোর দেওয়ায় শুরু হয়েগিয়েছিল লকডাউন। 

আরও পড়ুনঃ ঢাল নেই, তরোয়াল নেই, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যেন নিধিরাম সর্দার ভারতীয় চিকিৎসকরা

আরও পড়ুনঃ আবারও দিল্লিতে করোনায় সংক্রমিত চিকিৎসক, বন্ধ করে দেওয়া হল সরকারি হাসপাতাল

আরও পড়ুনঃ মারণ করোনা বাসা বাঁধেনি তো শরীরে, নিশ্চিত হতে এবার ঘরে বসেই করা যাবে পরীক্ষা

কেন্দ্রীয় প্রশাসন জানিয়েছে শুধু দেশের নাগরিকদের চিহ্নিত করেই দায়িত্ব শেষ করা হবে না। চিহ্নিত করা হবে নিজামুদ্দিনের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া বিশেদী পর্যটকদেরও। পরিক্ষা করা হবে তাঁদের ভিসাও। নিয়ম লঙ্ঘন করলে নেওয়া হবে কড়া পদক্ষেপ।  অভিযুক্তদের কালো তালিকাভুক্ত করা হতে পারে বলেও জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট সংস্থা।