মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে ২১ দিনের জন্য সারাদেশ সম্পূর্ণ লক ডাউনের আওতায় চলে যাচ্ছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যাবেলায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই কথা ঘোষণা করে বলেছেন যে করোনভাইরাস প্রাদুর্ভাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য এই সিদ্ধান্ত জরুরি ছিল। বিশ্বজুড়ে এই মহামারী ছড়িয়ে পড়ার করোনাভাইরাস মহামারী বিষয়ে জাতির উদ্দেশ্যে তাঁর দ্বিতীয় ভাষণে নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন, এই সিদ্ধান্তে ফলে অর্থনৈতিক ক্ষতি হবে, কিন্তু জনগণের প্রাণ বাঁচানো সরকারের কাছে আরও বেশি জরুরি বিষয়।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতবাসীকে সতর্ক করে বলেছেন, যদি আগামী ২১ দিনের জন্য সম্পূর্ণ লকডাউন অনুসরণ না করা হয়, তবে সম্পূর্ণ দেশ ২১ বছর পিছিয়ে যাবে এবং অনেক পরিবার বিধ্বস্ত হবে। তাই আগামী ২১ দিনের জন্য বাড়ির বাইরের পা রাখা সম্পূর্ণ নিষেদ্ধ। এমনকি নাগরিকদের তিনি হাত জোড় করে এই আহ্বান মেনে চলার অনুরোধ করেছেন। ভারতে এখন পর্যন্ত ৫০০ এরও বেশি মানুষের দেহে সংক্রামিত হওয়া এই মারাত্মক করোনাভাইরাসকে মোকাবিলার একমাত্র উপায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, বিশ্বের অনেক শক্তিশালী দেশ তাদের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা সত্ত্বেও এখন অসহায় হয়ে পড়েছে। সংক্রমণ বিশেষজ্ঞরা এবং মারাত্মক ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইকারী অন্যান্য দেশের অভিজ্ঞতায় এটা পরিষ্কার যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাই এই রোগের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের একমাত্র উপায়। বক্তৃতার শেষ অংশে তিনি বলেন, তাঁর সম্পূর্ণ বিশ্বাস, ভারত এই চ্যালেঞ্জে বিজয়ী হবে। আর তার জন্য জনগণকে নিজেদের, পরিবারের যত্ন নিতে হবে।