Asianet News BanglaAsianet News Bangla

India's COVID-19 Tally: ভারতে করোনার বিস্ফোরণ, গত তিন মাসের মধ্যে শীর্ষে পৌঁছল সংক্রমণ

সোমবার, ৩ জানুয়ারি, ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের (Daily Covid Cases in India) সংখ্যা গত তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছল। জেনে নিন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Union Health Ministry) দেওয়া এদিনের করোনা পরিসংখ্যান।  
 

India reports 33,750 new daily cases, 123 deaths on 3 January 2022 ALB
Author
Kolkata, First Published Jan 3, 2022, 10:08 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

একধাক্কায় বিশাল বাড়ল ভারতের করোনাভাইরাস সংক্রমণের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় ৩৩,৭৫০ টি নতুন কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে, সোমবার সকালে জানালো কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক (Union Heath Ministry)। ভারতের কোভিড-১৯ তথ্য বলছে, ২০২১ সালের ১৮ সেপ্টেম্বরের পর থেকে এদিনই ভারতের দৈনিক কোভিড-১৯ সংক্রমণের সংখ্যা সর্বোচ্চ। রবিবার সকালে ভারতের দৈনিক নতুন কোভিড রোগীর সংখ্যা ছিল ২৭,৫৩৩। অর্থাৎ একদিনে ২২ শতাংশ বাড়ল ভারতের দৈনিক করোনা সংক্রণের সংখ্যা (India's Daily COVID-19 Cases)। 

অন্যদিকে, করোনার নবতম স্ট্রেইন, ওমিক্রন (Omicron Variant) সংক্রমণের সংখ্যা ভারতে পৌঁছেছে ১,৭০০-তে। এখনও পর্যন্ত ২৩টি রাজ্যে ছড়িয়েছে এই নয়া স্ট্রেন। সবচেয়ে বেশি ওমিক্রন কেস রিপোর্ট করা হয়েছে মহারাষ্ট্র (Maharashtra) থেকে, ৫১০টি। তারপরই রয়েছে দিল্লি (Delhi)। রাজধানীতে ওমিক্রন সংক্রমণের সংখ্যা এখন ৩৫১।     

তবে আশার কথা, রবিবারের তুলনায় এদিন অনেকটাই কমেছে কোভিড জনিত কারণে মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় করোনা জনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে ১২৩ জনের। একদিন আগে এই সংখ্যাটা ছিল ২৮৪। মহামারির শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত করোনায় ভারতে মোট মৃত্যু হল ৪,৮১,৮৯৩ জনের। দেশে করোনায় মৃত্যুর হার এখন ১.৩৮ শতাংশ।

সক্রিয় মামলা অর্থাৎ চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা এখন দাঁড়িয়েছে ১,৪৫,৫৮২-তে। মোট করোনা সংক্রমণের ০.৪২ শতাংশ এখন চিকিৎসাধীন। দেশের মধ্যে সবথেকে বেশি চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা রয়েছে মহারাষ্ট্রে, ৪৫,৭১৬। তারপর রয়েছে কেরল, (Kerala) ১৯,৭১৪। তিন নম্বরে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal)। বাংলায় এখন চিকিৎসাধীন ১৭,০৩৮ জন। পরের দুই স্থানে রয়েছে যথাক্রমে কর্নাটক (Karnataka), ১০,৩২১ এবং তামিলনাড়ুুু (Tamil Nadu), ৯,৩০৪।

গত ২৪ ঘন্টায় ১০,৮৪৬ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। ফলে মহামারির শুরু থেকে মোট সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা পৌঁছেছে ৩,৪২,৯৫,৪০৭-এ দাঁড়িয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুসারে দৈনিক ইতিবাচকতার হার এখন ৩.৮৪ শতাংশ রেকর্ড করা হয়েছে। সাপ্তাহিক ইতিবাচকতার হার বর্তমানে ১.৬৮ শতাংশ।

২০২১ সালের ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতে কোভিড-১৯ টিকা দেওয়া শুরু হয়েছিল। ২০২২ সালের ৩ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট টিকা দেওয়াা হয়েছে ১৪৫ কোটির বেশি (১,৪৫,৬৮,৮৯,৩০৬ টি)। গত ২৪ ঘন্টায় সারা দেশে ২৩,৩০,৭০৬ ডোজ টিকাকরণ হয়েছে। সোমবার থেকেই ভারতে ১৫ থেকে ১৮ বথর বয়সীদের টিকাকরণ শুরু হচ্ছে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios