২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই ভারতের সকলে পাবেন করোনার টিকা। শুক্রবার স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর। এদিনই কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী, ভারতের টিকাকরণের পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রকে আক্রমণ করছেন। এখনও পর্যন্ত ১৩০ কোটি জনসংখ্যার ভারতের যে মাত্র তিন শতাংশেরও কম নাগরিক করোনা টিকার দুটি ডোজই পেয়েছেন, এই তথ্য তুলে ধরেছিলেন রাহুল। তারই জবাবে এদিন কোভিড টিকাকরণের 'নীল নকশা' প্রকাশ করল কেন্দ্র।

জাভাড়েকর জানান, ২০২১ সাল শেষ হওয়ার আগেই ভারতের কোভিড টিকাকরণ অভিযান শেষ হবে। ডিসেম্বরের মধ্যে কীভাবে ১০৮ কোটি জনগণকে ২১৬ ডোজ করোনা টিকা দেওয়া হবে, ইতিমধ্যেই তার একটা নীলনকশা তৈরি করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। বরং কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলির জন্যই ভারতের টিকাকরণ পরিকল্পনা ধাক্কা খাচ্ছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর দাবি, এই রাজ্যগুলিতে ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে না। তাই, ভারতের করোনা টিকাকরণ নিয়ে রাহুল গান্ধী উদ্বিগ্ন হলে, তাঁর কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলিতে যাতে টিকা যথাযথভাবে দেওয়া হয়, সেইদিকে তাঁকে মনোযোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রকাশ জাভড়েকর।

শুধু তাই নয়, রাহুল গান্ধীর সমালোচনাকে নস্য়াত করতে 'টুলকিট মামলা'র প্রসঙ্গও টেনে আনেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তিনি বলেছেন, রাহুল গান্ধীর বক্তব্যের ভাষা এবং যুক্তি থেকে সাফ বোঝা যাচ্ছে টুলকিট নথি তাঁরই তৈরি করা। যে ভাষা যুক্তি এবং ভয় ছড়ানোর চেষ্টা তিনি করছেন, তা সেই টুলকিট কৌশলেরই অংশ। টুলকিট হল একটি অনলাইন নথি, যা নরেন্দ্র মোদীকে বদনাম করার জন্য কংগ্রেসের পক্ষ থেকেই তৈরি করা হয়েছে বলে অভিযোগ কেন্দ্রের। দিল্লি পুলিশ বর্তমানে বিষয়টির তদন্ত করছে।