আতঙ্কিত সকলেই। এ রাজ্যে করোনা মোকাবিলায় প্রশাসনকে আর্থিক সাহায্য করতে এগিয়ে এলেন রায়গঞ্জের এক ব্যবসায়ী। সরকারি তহবিলে ২৫ লক্ষ টাকা দান করলেন তিনি। 

আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ খরচের প্রস্তাব, একাই জেলাশাসকের দপ্তরে হাজির বিজেপি সাংসদ

এ রাজ্যে প্রথম থেকেই সতর্ক ছিল সরকার। কিন্তু তা সত্ত্বেও সংক্রমণ ঠেকানো যায়নি। করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। তাঁদের মধ্যে দমদমের এক প্রৌঢ় আবার মারা গিয়েছেন। ফলে আতঙ্ক বেড়ে দিয়েছে কয়েকগুণ। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সোমবার বিকেল থেকে শুক্রবার মধ্যরাত পর্যন্ত কলকাতা-সহ কয়েকটি জেলা ও পুর এলাকায় লকডাউন জারি করা হয়। সেই লকডাউনের মেয়াদ তো বেড়েইছে, মঙ্গলবার নবান্নে বৈঠকের পর গোটা রাজ্যকেই লকডাউনে আওতায় আনার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: ফস্কা গেরো, কোনওরকম থার্মাল স্ক্রিনিং ছাড়াই ওড়িশা থেকে কাতারে কাতারে লোক ঢুকছে দিঘায়

এরআগে গত শুক্রবার কোরনা নিয়ে নবান্নে জরুরি বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠক শেষে ঘোষণা করেন, পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে সরকারি অফিসগুলিতে হাজিরা কমিয়ে ৫০ শতাংশ করা হচ্ছে। একই হারে হাজিরার কমানোর জন্য বেসরকারি সংস্থাগুলির কাছে আবেদন জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় এ রাজ্যে স্টেট এর্মাজেন্সি রিলিফ ফান্ড গঠন করা হয়েছে।  মঙ্গলবার সেই ফান্ডেই ২৫ লক্ষ টাকা দান করলেন রায়গঞ্জের ব্যবসায়ী রিংকু কল্য়াণী। এদিন জেলাসদর কর্নজোড়ায় দিয়ে উত্তর দিনাজপুরের জেলাশাসক অরবিন্দকুমার মীনার হাতে চেক তুলে দেন তিনি। তাঁর উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলেই। শুধু তাই নয়, করোনা মোকাবিলায় সরকারি তহবিলে এই প্রথম কোনও সাধারণ মানুষ টাকা দিলেন বলে জানিয়েছেন।