লকডাউনের মাঝেই এলাকায় ভিড় বাড়ছিল বহিরাগতদের। করোনা আতঙ্কে শেষপর্যন্ত মদের ঠেক ভেঙে দিলেন স্থানীয় মহিলারা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে মদ ব্যবসায়ী ও নেশাড়ুদের সঙ্গে তাঁদের রীতিমতো খণ্ডযুদ্ধ চলল। তুমুল উত্তেজনা ছড়াল উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের পশ্চিম বোগ্রাম এলাকায়।

আরও পড়ুন: ওষুধের বোতলে মুখ দিলেই চড়ছে নেশা, লকডাউনের মাঝে চাঞ্চল্যকর পর্দাফাঁস কল্যাণী গ্যাং-এর

করোনা আতঙ্কে ছড়িয়েছে রাজ্যের সর্বত্রই। প্রশাসনের তরফে সাধারণ মানুষকে ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে, চলছে লকডাউন। এই পরিস্থিতিতেও রমরমিয়ে মদের ঠেক চলছিল রায়গঞ্জের কমলাবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের পশ্চিম বোগ্রামে। অন্তত তেমনই অভিযোগ স্থানীয় মহিলাদের। তাঁদের দাবি, স্রেফ স্থানীয় যুবক বা পুরুষেরা নন, প্রতিদিনই নেশার টানের মদের ঠেকে ভিড় করতেন বহিরাগতরাও। কিন্তু এভাবে যদি চলতে থাকে, তাহলে করোনা সংক্রমণ ছড়াতে কতক্ষণ! আশঙ্কা ক্রমশই বাড়ছিল। জানা গিয়েছে, মদের ঠেকটি বন্ধ করার জন্য বহুবার অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু তাতেও কোনও লাভ হয়নি। শেষপর্যন্ত মঙ্গলবার সকালে ধৈর্য্যের বাঁধ ভাঙে এলাকার মহিলাদের। সকলে মিলে অভিযান চালিয়ে মদের ঠেকটি ভেঙে দেন তাঁরা। 

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে 'ব্রাত্য' জামাই, শ্বশুরবাড়িতে ঠাঁই মিলল না যুবকের

আরও পড়ুন: মুখে দিলেই মিলিয়ে যাবে করোনা, টোটকা দিলেন কলকাতার 'বদ্যি'

এদিকে এই ঘটনার পর পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। মদ বিক্রেতা ও নেশাড়ুদের সঙ্গে প্রতিবাদীদের রীতিমতো খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। মদ ও মদ তৈরির সরঞ্জাম বাজেয়াপ্ত করা হয়। তবে কেউ গ্রেফতার হয়নি।