ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ বা IPL-র বাকি ম্যাচগুলি করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় তরঙ্গের কারণে আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। বুধবার ভারতের ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড বা বিসিসিআই জানিয়েছেন দিল্লি হাইকোর্টকে। জনস্বাস্থ্যের তুলনায় আইপিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে- এই বিষয়ে দায়ের হওয়ার মামলার শুনানি চলছিল। সেই সময়ই বিসিসিআই-এর পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে আপাতত সমস্ত ম্যাচ স্থগিত রাখা হয়েছে। 

বিসিসিআই-এর হয়ে সওয়াল করেন সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা। তিনি দিল্লি আদালতের বিচারপতি ডিএন প্যাটেল ও বিচারপি জাস্মিত সিং-এর বেঞ্চকে জানিয়েছেন আগামী ১৯ মে পর্যন্ত কোনও খেলাই হবে না। যদিও দিল্লি সরকারের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, লকডাউন নিয়ে দিল্লি সরকার যে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল সেখানে বলা হয়েছিল বর্তমান সময় জনস্বাস্থ্যকে অগ্রাধিকার দেওয়া সবথেকে জরুরি। তাই যেকোনও স্টেডিমায়ে দর্শক উপস্থিতি না রেখেই জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানের ম্যাচ করা যেতে পারে। আর সেই ক্ষেত্রে আবেদনকারীর দাবি ছিল মহামারিরা কারণে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে চাপ বাড়ছে। অনেক মানুষই প্রিয়জনের চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে না পেরে নাজেহাল হচ্ছেন। সেই অবস্থায় তাঁদের কাছে এজাতীয় ম্যাচ বিদ্রুপের মত। সরকার এজাতীয় ম্যাচ প্রদর্শন করে নাগরিকদের অনুভূতিতে আঘাত করছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। 

মঙ্গলবারই বেশ কয়েকজন করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর ২০২১ সালের অইপিএল ম্যাচ স্থগিত করার কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছিল বলে বিসিসিআই জানিয়েছিল।