আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা আপাতত স্থগিত। আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আসামরিক বিমান মন্ত্রকের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে একথা জানান হয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে  বর্তমানে গোটা দেশেই জারি করা হয়েছে লকডাউন। ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন থাকছে। তাই বন্ধ রাখা হচ্ছে আন্তর্জাতিক উড়ান। তবে সররকম পণ্যবাহী বা কার্গো বিনাম চলাচলের ওপর কোনও নিষেধাজ্ঞা থাকছে না। 

গত ১৯ মার্চ অসামরিক বিমান মন্ত্রকের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞাপ্ত জারি ২৯ মার্চ পর্যন্ত পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মারাত্মক আকার নেওয়ায় সিন্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে বলে জানান হয়েছ। 

গত বুধবার থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে অন্তর্দেশীয় উড়ান পরিষেবা। ৩১ মার্চ পর্যন্ত অন্তর্দেশীয় উড়ান পরিষেবা বন্ধ থাকার কথা। অন্তর্দেশীয় বিমানের ক্ষেত্রে এখনও সূচি বদলের কোনও সিদ্ধান্ত জানান হয়নি। 

আরও পড়ুনঃ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় কী করেছে ভারতীয় সেনা, পর্যালোচনা রাজনাথের

আরও পড়ুনঃ লকডাউনে কোনও মানুষই খালি পেটে ঘুমাতে যাবে না, ১লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ কেন্দ্রের

আরও পড়ুনঃ করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের পুরস্কার, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের ৫০ লক্ষ টাকার বিমা

বর্তমানে দেশে যাত্রীবাহী পরিষেবা সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। বন্ধ রয়েছে দেশের লাইফ লাইন রেল যোগাযোগ। বন্ধ মেট্রোপরিষেবাও। একই অবস্থা বাস পরিবহনেরও। বর্তমান ভারতে যোগাযোগ ব্যবস্থা প্রায় বিচ্ছিন্ন। জরুরী পরিষেবার ক্ষেত্রে অবস্যা ছাড় দেওয়া হয়েছে। 

তবে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও বাগে আনা যায়নি করোনাভাইরাসকে। কারণ এখনও পর্যবন্ত দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫৬ । মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের। এই পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বদ্ধ পরিকর দেশের সরকার।