করোনা মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়াচ্ছে না কেন্দ্র। এই অভিযোগ বরাবরই করে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। তবে এবার বোধহয় সেই অভিযোগে কিছুটা হলেও প্রলেপ পড়ল। রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির বেহাল দশা। এই অবস্থায় পাশে দাঁড়াল কেন্দ্র। কোভিড পরিস্থিতি সামাল দিতে ভারতীয় বায়ুসেনার বিমানে রাজ্যে এল ভেন্টিলেটর মেশিন। 

কোভিড পরিস্থিতি সামাল দিতে দিল্লি থেকে রাজ্যে এল ভেন্টিলেটর মেশিন।  দিল্লি থেকে ভারতীয় বায়ুসেনার বিমানে ৭৩৫ কেজি ওজনের ভেন্টিলেটর ও তার সরঞ্জাম এসে পৌঁছায়। শনিবার রাতে কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছয় ভারতীয় বায়ুসেনার এই বিশেষ বিমান। এরপর সেই ভেন্টিলেটরগুলো রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকের হাতে তুলে দেওয়া হয়। 

কোভিড মোকাবিলার জন্য এই ভেন্টিলেটারগুলো পৌঁছে যাবে রাজ্যের সরকারি হাসপাতালগুলিতে। এতে উপকৃত হবেন অসংখ্য সাধারণ করোনা রোগী। এদিকে, স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে আগামী তিন দিনের মধ্যে রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলিকে আরও টিকা পাঠান হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে জানান হয়েছে প্রায় ৪০ লক্ষ ৬৫০ হাজার কোভিড টিকা পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মন্ত্রকের দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী সরকার এখনও পর্যন্ত বিনা মূল্যে ২১ কোটি ৮০ লক্ষেও বেশি টিকা রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলিকে সরবরাহ করেছে। যার মধ্যে শনিবার বিকেল পর্যন্ত ১৯ কোটি ৫০ হাজার মানুষকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। তাই রাজ্যগুলি এখন নিশ্চিত হয়ে টিকাকর্মসূচি চালিয়ে যেতে পারে। 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বিবৃতিতে অনুযায়ী রবিবার সকাল পর্যন্ত দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৬৫ লক্ষেরও বেশি। দৈনিক সংক্রমণের পরিসংখ্যান ২ লক্ষ ৪০  হাজারের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৭৪১জনের। তবে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫৫ হাজারের বেশি। স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে এখনও পর্যন্ত ২ লক্ষ ৯৯ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশে অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ২৮ লক্ষেরও বেশি।