বৃহস্পতিবার ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওল্ড ট্রাফোর্ডে বিশ্বকাপ ২০১৯-এ তাদের ষষ্ঠ ম্যাচ খেলতে নামছে ভারত। এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপে ভারত তাদের চিরাচরিত আকাশী নীল জার্সি পরেই খেলছে। কিন্তু, সপ্তম ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কোহলিরা কমলা রঙের জার্সি পরে খেলবেন বলে খবর রয়েছে। এই নিয়ে কংগ্রেস ও সমাজবাদি পার্টি আপত্তি তুলল। এর পিছনে তারা বিজেপি সরকারের হাত দেখছে।

মহারাষ্ট্রের বিধানসভায় সমাজবাদি পার্টির বিধায়ক আবু আসিম আজমি অভিযোগ করেন এটা বিজেপি গৈরিকিকরণের রাজনীতির অংশ। তিনি মনে করিয়ে দেন ভারতচের তেরঙ্গা পতাকা এক মুসলিম নকশা করেছিলেন এবং তাতে গেরুয়া, সাদা ও সবুজ তিনটি রঙই রয়েছে। ভারতের বিকল্প জার্সিতে তাই এই তিনটি রঙই থাকা উচিত ছিল বলে দাবি করেছেন তিনি। তাঁরে সমর্থন করেন কংগ্রেস বিধায়ক নাসিম খানও।

তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা রামদাস অথওয়ালের যুক্তি, গেরুয়া সাহস ও বিজয়ের প্রতীক। তাই ভারতীয় ক্রিকেট দলের জার্সির এই রঙে কারোর আপত্তি থাকার কথা নয়।

আইসিসি এই বারই ফুটবলের মতো হোম-অ্যাওয়ে জার্সি চালু করেছে। একই হবা কাছাকাছি রঙের  জার্সি পরে দুটি দল খেলতে পারবে না। ভারত ও ইংল্যান্ড দুই দলের জার্সিই নীল রঙের। ইংল্যান্ড আয়োজক দেশ বলে তারা সব ম্যাচেই তাদের চিরাচরিত জার্সি পরে খেলার সুবিধা পাচ্ছে। তাদের মুখোমুখি হওয়ার সময় তাই ভারতীয় দলকে অ্যাওয়ে জার্সি পরতে হবে।

আইসিসির তরফে জানানো হয়েছে, বেশ কয়েকটি বিকল্প রঙের কম্বিনেশন বিসিসিআই-কে দেওয়া হয়েছিল। তার থেকে কমলাটিকেই বিসিসিআই বেছে নিয়েছে। ভারতের আগের টি২০ জার্সিতে এই কমলা রঙের ব্যবহার ছিল। সেখান থেকেই নতুন জার্সিটি নকশা করা হয়েছে।