এবারের আইপিএল-এ অবিশ্বাস্য ফর্মে ছিলেন আন্দ্রে রাসেল। কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে বল হাতে ১১টি উইকেট দখল করার পাশাপাশি ৫১০ রানও করেন। আইপিএল শেষ, এখন সামনে বিশ্বকাপ। আবার সবাই যে যার দেশের জার্সিতে ফিরে গিয়েছেন। কিন্তু, প্রায় সব দেশের বোলারদের মাথার পিছনেই আইপিএল-এর পর থেকে ঘুরছে দ্রে রুসের নাম। তাঁকে কীভাবে আটকাবেন সেই পথই বের করার অঙ্ক চলছে।

রাসেলের আইপিএল-টা যতটাই ভালো গিয়েছে, ততটাই খারাপ কেটেছে ভারতীয় দলের অন্যতম ভরসা চায়নাম্য়ান বোলার কুলদীপ যাদবের। ৯ ম্য়াচ খেলে মাত্র ৪টি উইকেট পেয়েছেন। ওভার প্রতি  দিয়েছেন প্রায় ৯ করে। জাতীয় দলের নিয়মিত সদস্যকে বাদও পড়তে হয় নাইটদের প্রথম একাদশ থেকে। কিন্তু সম্প্রতি, সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে কুলদীপ দাবি করেছেন রাসেলের দুর্বলতা তাঁর জানা। আর সেই জ্ঞানকে তিনি বিশ্বকাপের সময় সময় কাজে লাগাবেন।

কুলদীপের দাবি, বল ঘুরলে অস্বস্তিতে পড়েন রাসেল। তাই প্রচন্ড পেশির জোর থাকলেও স্পিনারদের বিরুদ্ধে সচরাচর খাপ খোলেন না রাসলে। এই একটি মাত্র দুর্বলতাই রয়েছে তাঁর। তবে বিষয়টা এতটাও সহজ নয় বলেই জানিয়েছেন চায়নাম্যান। তাঁর দাবি, রাসেলকে ফাঁদে ফেলার জন্য বেশ কয়েক রমের রণকৌশল তিনি সাজিয়েছেন। তিনি জানেন কীভাবে দ্রে রুসকে থামাতে হবে। মাথার মধ্য়ে স্পষ্ট ছক কষা রয়েছে। সেই ছক এখনই প্রকাশ করতে চাননি তিনি।

উত্তরপ্রদেশের এই তরণ স্পিনার নাইট শিবিরের আরও একটা অদ্ভুত তথ্য ফাণস করেছেন। দেড় মাসের মতো একই শিবিরে কাটানো সত্ত্বেও ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডারকে নাকি বল করার সুযোগ পাননি কুলদীপ। কারণ রাসেল নেটে স্পিনারদের খেলতে চাইতেন না। কুলদীপের দাবি রাসেল জোরে বোলারদের কাছে আতঙ্কের মতো। কিন্তু স্পিনাররা তাঁকে ফাঁদে ফেলতেই । কারণ সেটাই তাঁর দুর্বলতা।

আগামী ২৭ জুন ম্যাঞ্চেস্টারে আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯-এর ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এখন দেখার সেই ম্যাচে সম্মুখ সমরে রাসেল জেতেন না কুলদীপ।